Latest News

LSG vs RCB: ইডেনে রজত শো! বেঙ্গালুরুর কাছে হেরে আইপিএল থেকে বিদায় লখনউয়ের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রজত, রজত, রজত… ভারতীয় ক্রিকেটের নয়া তারকার জন্ম হল এদিনে ইডেনে। সেই রজত পাতিদারের নাম আজকের আগে অনেকেই জানতেন না। ইন্দোরের রজতের ভেল্কিতে এবারের আইপিএল থেকে ছিটকে গেল লখনউ। দাম পেল না রাহুলের দামি ইনিংস। বেঙ্গালুরুর কাছে ১৪ রানে হার রাহুলদের।(LSG vs RCB)

টস জিতে কোহলিদের প্রথম ব্যাট করতে পাঠান লখনউয়ের অধিনায়ক কে এল রাহুল। তবে বেঙ্গালুরুর তারকা আজ একজনই। রজত পাতিদার। সৌজন্যে তাঁর ৫৪ বলে অপরাজিত ১১২ রান। মূলত তাঁর দাপটেই আরসিবি প্রথমে ব্যাটিং করে তুলেছে ২০৭/৪।

আরসিবি ইনিংসে শুরুতে ফাফ ডু প্লেসি শূন্য রানে আউট হওয়ার পর আশঙ্কা ছিল বড় রানে পৌঁছাতে পারবে তো বেঙ্গালুরু? কোহলি ও রজতের জুটি আশা দেখিয়েছে। রজতের ইনিংসে ছিল ১২টি দৃষ্টিনন্দন বাউন্ডারি ও সাতটি ছক্কা। কোহলি আপারকাট মারতে গিয়ে আউট হলেও রজত ক্রিজে টিকে ছিলেন শেষ পর্যন্ত। কোহলি আউট হওয়ার পরে দীনেশ কার্তিকের সঙ্গে জুটি বেঁধে রজত ইডেনের দর্শকদের মনোরঞ্জন করে গিয়েছেন। শেষ বেলায় কার্তিকের ২৩ বলে ৩৭ রানের মারকুটে ইনিংসের ভরেই দুশোর গণ্ডি পেরিয়ে যায় বেঙ্গালুরু। লখনউয়ের হয়ে এদিন বল হাতে ম্যাচে তেমন দাগ কাটতে পারেননি মহসিন, আবেশ, ক্রনালরা।

বেঙ্গালুরুর ২০৭ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই মহম্মদ সিরাজের বলে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন কুইন্টন ডি’কক (৬)। তবে ম্যাচের হাল ধরেন অধিনায়ক কে এল রাহুল। প্রথমে মনন ভোরা (১১ বলে ১৯) ও পরে দীপক হুড্ডাকে সঙ্গে নিয়ে রানের গতি বজায় রাখেন। যদিও ২৬ বলে ৪৫ রানের ঝা চকচকে ইনিংস খেলে আউট হয়ে যান দীপক। কিন্তু ক্রিজে টিকে থাকেন রাহুল।

তবে শেষ রক্ষা হল না। ১৯ তম ওভারে হ্যাজেলউডের বলে শাহবাজ আহমেদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ৭৯ রানেই আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রাহুল। সেই ওভারেই পড়ে ক্রুনালের উইকেটও। জয়ের আশা সেখানেই শেষ হয়ে যায় লখনউয়ের। জয়ের থেকে মাত্র ১৪ রান দূরে থেমে যান রাহুলরা। যদিও এবারের আইপিএলে নতুন দল হিসেবে ভাল খেলেছে লখনউ ও গুজরাত। দুই দলই প্লে অফে পৌঁছায়। যদিও গুজরাত ফাইনালে পৌঁছালেও লখনউকে থামতে হয় দুই কদম আগেই।

তবে ইডেনের প্রায় ৬০ হাজার দর্শক আজ উপভোগ করলেন দুই ভারতীয় প্লেয়ারের শো। প্রথমে অনামি রজত ও পরে কে এল রাহুল। দুই দলের বোলারই আজ এই দুই তারকার ব্যাটের কাছে সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি। যদিও এদিনের ম্যাচে শেষ হাসি হাসলেন রজতই। টসের সময় বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক ডু’প্লেসি বলেছিলেন, ‘উইকেট খুব সুন্দর, ব্যাটসম্যানদের জন্য ভাল।’ সত্যিই রানের ফোয়ারা বয়েছিল এদিনের ইডেনে। শেষবেলায় বলাই চলে ব্যাটসম্যানদের হতাশ করেনি ইডেন, হতাশ করেনি কলকাতা।

হকির জন্য অ্যাডমিনস্ট্রেটর নিয়োগ করল হাইকোর্ট

You might also like