Latest News

ফেলে দেওয়া চুইংগাম কুড়িয়ে রংবেরঙের ছবি আঁকেন প্রৌঢ় শিল্পী, অভিনব শিল্প দেখে চমক দর্শকদের

শিল্পের পাশাপাশি এটা পরিবেশ রক্ষারও কাজ করে বলে মনে করেন তিনি।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চুইংগাম খাওয়ার অভ্যেস আমাদের অনেকেরই আছে। কিছুক্ষণ ধরে চিবোনোর পরে চুইংগামের শেষ ছিবড়েটা মুখ থেকে ফেলে দিই আমরা। আর সেই ফেলে দেওয়া চুইংগামই কুড়িয়ে নেন লন্ডনের বাসিন্দা বেন উইলসন। খুঁজে খুঁজে সংগ্রহ করেন রাস্তায় পড়ে থাকা চুইংগাম। আর সেই চুইংগাম দিয়েই তৈরি করেন নিত্যনতুন শিল্প!

চুইংগামের ছিবড়েকে ইচ্ছেমতো আকার দিয়ে, তার ওপরে তুলির আঁচড়ে রংবেরঙের ছবি আঁকেন বেন। তার পরে সেই রঙিন শিল্পগুলো আটকে দেন নানা জায়গায়। বেশিরভাগ সময়েই টেমস নদীর পাড়ে দেখা যায় বেন উইলসনকে। রং তুলি নিয়ে সেখানে বসেই একমনে চুইংগামের উপরে ছবি আঁকেন তিনি। তার পরে বার্নিশ করে চকচকে করেন নিজের কাজকে। শেষে সেই শিল্পগুলি আটকে দেন নদীর উপরের রেলিংয়ের গায়ে।

দেখে মনে হয়, নানা রঙে রঞ্জিত ছোট ছোট চাকতি দিয়ে রেলিং সাজিয়েছে কেউ। বলে না দিলে যে কারও পক্ষে বোঝা মুশকিল, সেগুলি চুইংগাম বলে। খুব ভাল করে খুঁটিয়ে না দেখলে জানারও উপায় নেই এ শিল্পের মূলধন হল মানুষের মুখ থেকে ফেলে দেওয়া চিবোনো চুইংগাম!

৫৭ বছরের বেন উইলসন হঠাৎ এক দিন নয়, গত ১৫ বছর ধরেই এই কাজটা করছেন। শিল্পের পাশাপাশি এটা পরিবেশ রক্ষারও কাজ করে বলে মনে করেন তিনি। কারণ ওই ফেলে দেওয়া চুইংগামগুলি সহজে মাটিতে মেশে না। উল্টে বরং পশু-পাখির গলায় আটকে বিপত্তি ঘটে প্রায়ই। তাই সেই টুকরোগুলোকেই নিজের আঁকার ছোট্ট ছোট্ট ক্যানভাস বানিয়ে নিয়েছেন তিনি। তার উপরেই এঁকে চলেছেন একের পর এক ছবি।

You might also like