Latest News

ট্যাংরা থেকে পাচার হয়ে যায় কিশোরী, ইনস্টা প্রোফাইল দেখে উত্তরপ্রদেশ থেকে উদ্ধার করে পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোশ্যাল মিডিয়ায় বন্ধুত্ব পাতাতে গিয়ে পাচারকারীর খপ্পরে পড়ে যায় কিশোরী (Women Trafficking)। ট্যাংরা থেকে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায় পাচারকারীরা। পরে মেয়েটির সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ঘেঁটে, মোবাইল লোকেশন ট্র্যাক করে পাচারকারীদের নাগাল পায় পুলিশ। ট্যাংরার ওই কিশোরীকে উদ্ধার করা হয় উত্তরপ্রদেশের ফয়জাবাদ থেকে।

পুলিশ জানিয়েছে, ট্যাংরার বাসিন্দা ১৬ বছরের কিশোরী টিউশন পড়তে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যায়। সন্ধেয় বাড়ি না ফেরায় চিন্তায় পড়ে যান বাবা-মা। চারদিকে খুঁজে, মেয়েটির বন্ধুদের ফোন করেও কোনও খোঁজ না মেলায় শেষে ট্যাংরা থানায় নিখোঁজ ডায়রি করেন। পুলিশ

অভিযোগ দায়ের করতেই তল্লাশি শুরু করে পুলিশ। তদন্তে নেমে প্রথমেই মেয়েটির মোবাইলের টাওয়ার লোকেশন ট্র্যাক করে পুলিশ। লোকেশন মিলিয়ে হাওড়ায় পৌঁছয় পুলিশ। কিন্তু সেখানে মেয়েটিকে না পাওয়ায়, ফের লোকেশন মিলিয়ে দেখা যায় খড়্গপুর দেখাচ্ছে। পুলিশ বুঝতে পারে, মেয়েটিকে ট্রেনে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এরপর মেয়েটির মোবাইল বন্ধ হয়ে যায়।

চারদিন পরে কিশোরী নিজেই বাড়িতে ফোন করে জানায় তাকে আটকে রাখা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, কয়েক সেকেন্ডের জন্য ফোন চালু করা হয়েছিল, এরপর আবার তার ফোন বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ তখন মেয়েটির সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল ঘাঁটাঘাঁটি শুরু করে। মেয়েটি সম্প্রতি কার কার সঙ্গে বন্ধুত্ব করেছিল, তার ফ্রেন্ড লিস্টে কারা কারা আছে সব খুঁটিয়ে দেখতে শুরু করেন তদন্তকারীরা।

পুলিস বুঝতে পারে যে, ওই কিশোরী ট্রেনে করে কোথাও যাচ্ছে। কিন্তু এরপরই তার ফোন সুইচ অফ হয়ে যায়। তারপর ৪দিন পর ওই কিশোরী নিজেই বাড়িতে ফোন করে। কয়েক সেকেন্ড কি মিনিটের ফোনে সে বাড়িতে জানায় যে তাকে আটকে রাখা হয়েছে। এরপর আবার তার ফোন বন্ধ হয়ে যায়। কিশোরীর ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল থেকে রোশন সিং নামে এক যুবকের খোঁজ মেলে। তারপর ওই যুবকের প্রোফাইলে গিয়ে পুলিশ দেখে, ছেলেটির বাড়ি উত্তরপ্রদেশের ফয়জাবাদে। রোশনের ফোন নম্বর জোগাড় করে তার মোবাইল লোকেশন ট্র্য়াক করে পুলিশ দেখে কিশোরী শেষ যেখান থেকে ফোন করেছিল, ছেলেটিও সেখানেই রয়েছে।

এরপরই উত্তরপ্রদেশের ফয়জাবাদে যায় কলকাতা পুলিশের টিম। সেখানকার একটি গোয়ালঘর থেকে উদ্ধার করে কিশোরীকে। তদন্তকারীরা বলছেন, রোশন সিং নারী পাচারকারী চক্রের সঙ্গে জড়িত। সেই চক্রে আর কারা কারা আছে তার খোঁজ চলছে।

You might also like