Latest News

ঘৃণার রাজনীতির বিরোধিতা, সংবিধান বাঁচানোর সংকল্পে সামিল কলকাতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ ভেঙে ফেলা হয়েছিল। সেই দিনটির কথা মাথায় রেখে এবং আরএসএস-বিজেপির হিন্দুত্ববাদী সাম্প্রদায়িক রাজনীতির বিরুদ্ধে ‘ঘৃণা বর্জন করো, সংবিধান বাঁচাও’ স্লোগানে গলা মেলালো কলকাতা।

এদিন দুপুরে বিভিন্ন অসাম্প্রদায়িক রাজনৈতিক ও গণসংগঠনের নেতৃবৃন্দ, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি-সহ সমাজের বিভিন্ন অংশের মানুষ হাজরায় সমবেত হন। সেখান থেকে মিছিল করে ধর্মতলার ওয়াই চ্যানেলের অভিমুখে রওনা দেন তারা। মিছিল থেকে সাম্প্রদায়িকতা, ফ্যাসিবাদ ও এনআরসি-সিএএ’র বিরুদ্ধে স্লোগান ওঠে। স্লোগান ওঠে দেশের সংবিধান বাঁচানো ও ঘৃণার রাজনীতিকে প্রত্যাখান করার দাবিতে।

ধর্মতলার সভায় বক্তব্য রাখেন নাগরিক আন্দোলনের মুখ ন্যাশনাল পিপলস অ্যালায়েন্স ফর মুভমেন্টস্ (এনএপিএম)-এর নেত্রী মেধা পাটকর। এছাড়াও বক্তব্য পেশ করেন সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহম্মদ কামরুজ্জামান, সিপিআইএমএল-লিবারেশনের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য, স্বরাজ ইন্ডিয়ার সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভীক সাহা, বিশিষ্ট মানবাধিকার কর্মী সুজাত ভদ্র, বন্দি মুক্তি কমিটির নেতা ছোটন দাস প্রমুখ।

বকেয়া ভাতা মেটাতে হবে, গড়তে হবে পে কমিশন, সাত দফা দাবিতে ধর্মঘটের পথে হাইকোর্টের কর্মচারীরা

এদিন মেধা স্মরণ করিয়ে দেন, ৬ ডিসেম্বর বাবাসাহেব আম্বেদকরের প্রয়াণ দিবস। তিনি বিআর আম্বেদকরের চেতনাকে ধারণ করার আহ্বান জানান সাধারণ মানুষের কাছে। ঘৃণার রাজনীতিকে প্রতিহত করে দেশের সংবিধানের প্রস্তাবনার ভিত্তিতে গণতন্ত্র রক্ষার কথাও বলেন তিনি। বিজেপির ঘৃণার রাজনীতির মোকাবিলার মধ্যেই জল-জমি-জঙ্গল রক্ষার লড়াই জড়িয়ে আছে, বলেন তিনি।

You might also like