Latest News

দ্রব্যমূল্যের আগুনে ঘি ঢালছে পেট্রোল–ডিজেল, শহরের রাস্তায় কমছে ব্যক্তিগত গাড়ি

দ্য ওয়াল ব্যুরো:‌ দ্রব্যমূল্যের আগুনে ফের ঘি ঢেলেই চলেছে পেট্রোল–ডিজেল। কলকাতায় সেঞ্চুরি পার করেও অব্যাহত পেট্রোলের দাম বৃদ্ধি। লিটার প্রতি ৩৯ পয়সা বেড়ে আজ, শুক্রবার কলকাতায় পেট্রোলের দাম ১০০ টাকা ৬৬ পয়সা।

বেড়েছে ডিজেলের দামও। লিটার প্রতি কলকাতায় ডিজেলের নতুন দাম ৯২ টাকা ৬৯ পয়সা। এর আগেই অবশ্য রাজ্যের বেশ কয়েকটি জেলায় পেট্রোলের দাম ১০০ ছুঁয়েছে। যে কারণে শহরে কমে গিয়েছে ব্যক্তিগত গাড়ি ব্যবহারও।

‘‌কয়েকদিন আগেও ৬ হাজার টাকার পেট্রোল ভরলে সারা মাস চলে যেত। এখন সেটা দাঁড়িয়েছে, ৮–৯ হাজারে। তাই খুব দরকার না হলে, আগের মতো আর নিজের গাড়ি নিয়েও বেরোচ্ছি না।’ ক্ষোভের সুরে‌ বললেন, নিধু দেবনাথ। জানবাজারের একটি পেট্রোল পাম্পে তেল ভরতে এসেছিলেন তিনি।

পাম্পের এক কর্মী জানালেন, আগে দিনে কম করে ১০০টা গাড়ি তেল ভরতে আসত। এখন সেই সংখ্যাটা মেরে কেটে ৫০–৬০। পেট্রোলের গাড়ি তাও তেল ভরছে। ডিজেল চালিত গাড়ি আরও কম।

জ্বালানির লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধিতে দিশাহারা পরিস্থিতি দেশ জুড়ে। কলকাতাতেও নাভিশ্বাস উঠছে। এদিন কলকাতায় ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা অনেক কম দেখা গিয়েছে বলে কলকাতা ট্রাফিক পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। তেলের দামের ভয়ে অনেকেই গাড়ি বের করছেন না। তবে প্রচুর বেড়েছে বাইকের সংখ্যা।

রফি আহমেদ কিদোয়াই রোডের একটি পেট্রোল পাম্পে তেল ভরতে এসেছিলেন নীল–সাদা ট্যাক্সি চালক রঘু যাদব। হাসতে হাসতে বললেন, ‘‌বাজার খুবই খারাপ। তেলের দাম বাড়ার সঙ্গে বেড়েছে ভাড়াও। যা শুনেই লোকজন পালাচ্ছেন। হাওড়া থেকে ডানলপ যেতে গেলে ৪০০ টাকা ভাড়া নিতে হচ্ছে। আগে, ২৫০ টাকায় হয়ে যেত। যে কারণে যাত্রীরাও পারতপক্ষে ট্যাক্সিতে চড়ছেন না।’‌

বাইকে তেল ভরছিলেন অনুপম কুমার। পেশায় ব্যবসায়ী। তাঁর কথায়, ‘‌এমনিতেই করোনার জন্য রোজগার কম। আর এদিকে তেলের দাম বাড়ছে। এরকম চলতে থাকলে গাড়ি ছেড়ে সাইকেল চালাতে হবে। তাই অকারণে বাইক নিয়ে বেরোনো বন্ধই করে দিয়েছি।’‌

এই পাম্পের প্রৌঢ় কর্মী বললেন, ‘‌এমনিতেই গাড়ি নিয়ে লোকজন কম আসছেন। এরকম দাম বাড়তে থাকলে, তেল বিক্রি তলানিতে এসে ঠেকবে।’‌

কলকাতার পুলিশের এক ট্রাফিক সার্জেন্ট বললেন, ‘ব্যক্তিগত ‌গাড়ির সংখ্যা আগের থেকে নিঃসন্দেহে কমেছে। তবে উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে বাইক–স্কুটির সংখ্যা। ব্যক্তিগত গাড়ি কত কমল, সেই সংখ্যাটা এখনই বলা সম্ভব নয়।’‌

You might also like