Latest News

পুরভোটে মারপিট নয়, স্পষ্ট নির্দেশ অভিষেকের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সপ্তাহ দুয়েক আগে তৃণমূলের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল একটি সভায় দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, এবার ভোট হবে। মানুষ ভোট দেবেন। কোনও ঝামেলা করা যাবে না। কেষ্ট মণ্ডল এও বলেছিলেন, এর আগে যে ভাবে ভোট হয়েছিল তা ভয়ঙ্কর অন্যায় ছিল। সেইসময়ে অনেকেই ভ্রু কুঁচকেছিলেন। অনুব্রতর হলটা কী!

শনিবার স্পষ্ট হল, ওটা অনুব্রত মণ্ডলের কথা নয়। কালীঘাটেরই বার্তা। কলকাতা পুরসভা নির্বাচনের ১৪৪ জন প্রার্থীকে ডেকে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলে দিলেন, শান্তিপূর্ণ ভোট করতে হবে। কোনও রকমের অশান্তি করা যাবে না। যদি কোনও প্রার্থী বা ওই এলাকায় দল অশান্তি করে, মারপিট করে তাহলে দল তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী সময়ে ব্যবস্থা নেবে।

এদিন হাজরার মহারাষ্ট্র নিবাস হলে কলকাতার ১৪৪ জন প্রার্থীকে নিয়ে বৈঠক করেন অভিষেক। সেখানে একটাই কথা পইপই করে তৃণমূলের তরুণ নেতা বলেছেন, তা হল মহানগরের ভোট যেন শান্তিপূর্ণ হয়। তৃণমূলের এক প্রার্থী বলেন, অভিষেক নির্দেশ দিয়েছেন জোর করে ভোট করানো যাবে না। বিরোধীদের কাছেও ভোট ভিক্ষা করার কথা বলেছেন। কোনও তৃণমূল প্রার্থী যেন অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী না হন।

এমনিতে ভোট লুঠ, সন্ত্রাস ইত্যাদি নিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিরোধীদের অভিযোগ বিস্তর। ২০১৮ সালের পঞ্চায়েত ভোটে হিংসার ভয়াবহ ছবি দেখেছিল বাংলা। বিরোধী প্রার্থীকে পুড়িয়ে মারা, ব্যালট বক্স ছিনতাই করে নিয়ে পুকুরে ফেলে দেওয়া এমনকি গণনা কেন্দ্রেও আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছিল। আবার এও ঠিক একুশের বিধানসভা ভোটে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় ভোট হয়েছিল বাংলায়। আট দফার ভোটে নজরদারিতে ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনী। সেখানে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে তৃণমূল।

অনেকের মতে, চব্বিশের লোকসভার আগে দলের ভাবমূর্তি ঠিক রাখতেই কলকাতা পুরভোটে যাতে যথাযথ গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় থাকে তার বার্তা দিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক।

You might also like