Latest News

যেমন খুশি তেমন ভাড়া! উল্টোডাঙায় ক্ষোভে ফেটে পড়লেন অটো-যাত্রীরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভাড়া নিয়ে রোজ সমস্যায় পড়তে হয়, এমন অভিযোগ নতুন নয় উল্টোডাঙা অটো স্ট্যান্ডে। পুলিশ বা ইউনিয়নের বালাই নেই। দু’চার কিলোমিটার দূরের সল্টলেক এলাকায় যাওয়ার বিভিন্ন রুটে ভাড়া হাঁকেন যা খুশি এবং যেমন খুশি। এক জন কুড়ি তো অন্য জন চল্লিশ। তা আবার সময় বুঝে বদলেও যায়। সকালের অফিস-ব্যস্ততার সময়ে এক রকম, আবার রাতে বাড়ি ফেরার সময় এক রকম। এই অটো-রাজের বিরুদ্ধেই এবার সরব হলেন নিত্যযাত্রীরা। সোমবার সকাল ৯টা ৪৫ মিনিট নাগাদ শুরু করেন অবরোধ। বাস, অটো আটকে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা। অবরোধের জেরে রাস্তায় যানজট তৈরি হয়। বেশ কিছুক্ষণের জন্য অবরুদ্ধ হয়ে যায় বাইপাস থেকে খান্না মোড়।

অভিযোগ, এই রুটের কোনও গন্তব্যেই কোনও নির্দিষ্ট অটো ভাড়া নেই গত কয়েক বছর ধরে। পাশাপাশি এই রুটে ব্যস্ত সময়ে বাসে ওঠাও বেশ কঠিন। সেই সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছেন অটোচালকেরা। আর তার জেরে প্রতিনিয়ত সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সল্টলেকগামী যাত্রীদের। নিত্যযাত্রীদের ভোগান্তি তো রোজ মাত্রা ছাড়ায়। বৃষ্টি হলে তো কথাই নেই। একই অবস্থা যে কোনও রকম উৎসব-অনুষ্ঠানে।

সোমবার সকালে পথে নামা বেশির ভাগ মানুষই অফিস যাত্রী। উল্টোডাঙা থেকে সেক্টর ফাইভ বা করুণাময়ীতে অফিসে যান তাঁরা। অভিযোগ, মাত্রাতিরিক্ত ভাড়া না দিলে যেতে চায় না অটোওয়ালারা। প্রশ্ন করলে মুখের ওপর নেমে যেতে বলেন। অন্য উপায়ও থাকে না, কারণ বাসে এত ভিড় থাকে, কার্যত উঠতেই পারেন না যাত্রীরা। তাই রীতিমত হয়রানির শিকার তাঁরা। এর ফলে প্রায়ই অফিসযাত্রীদের দেরি হয়ে যায় বলেও অভিযোগ। নিত্যদিনের সমস্যার সুরাহা চেয়ে তাই এদিন পথে নামেন তাঁরা।

পুলিশ জানিয়েছে, এত দিন কোনও অভিযোগ জমা পড়েনি তাদের কাছে। পুলিশের পাল্টা দাবি, যাত্রীরাও রোজ ওই ভাড়া দিয়েই যাতায়াতে রাজি হয়ে যান। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে পুলিস। 

You might also like