Latest News

কলকাতায় শুরু পুজো-প্রস্তুতি, করোনার মধ্যেই খুঁটিপুজো সেরে ফেলল কোন কোন ক্লাব

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পুজো (durgapuja) হবে, তবে সাবধানে।‌ ঢাকে কাঠি পড়তে আর বেশি দেরি নেই। কলকাতায় (kolkata) শুরু হয়ে গেছে পুজো প্রস্তুতির তৎপরতা। সেইসঙ্গে কমিটিগুলির মনে রয়েছে সংক্রমণের আশঙ্কাও। তাই করোনা পর্বে এবারের পুজো কেমন হবে, তা নিয়ে বৈঠকে বসছেন একাধিক পুজো কমিটি। করোনা আবহে পুজো কেমন হবে, তা নিয়ে ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেছে। তৈরি হয়েছে একাধিক নির্দেশিকা (covid rule)। পুজোর প্রস্তুতির মধ্যেই চলছে বিভিন্ন ক্লাবের খুঁটিপুজো।

রবিবার ভবানীপুর ৭৫ পল্লীর (75 palli) খুঁটিপুজো ও পুজোর চূড়ান্ত বৈঠক হয়। খুঁটিপুজোয় ছিলেন কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ও পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কামারহাটি ও রাসবিহারীর বিধায়ক মদন মিত্র ও দেবাশিস কুমার প্রমুখ। সেখানে নিজের ছোটবেলার পুজোর স্মৃতিচারণা করেন ফিরহাদ। বলেন, ‘৭৫ পল্লী। যেটাকে আমরা বলি মমতা ব্যানার্জির পুজো। প্রত্যেক বছর নতুন কিছু না কিছু হয় এখানে। ছোটবেলা থেকে আমরা পুজোয় আনন্দ করে আসছি।’ ৭৫ পল্লীর এবার ৫৭ তম বছর। পুজোর উদ্যোক্তাদের অন্যতম মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাই কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায় বললেন, ‘‌এবারের পুজো ফাটাফাটি হবে। অলরেডি ঢাকে কাঠি পড়ে গেছে। আমরা নাচতে শুরু করেছি।’‌

আরও পড়ুন: পুজোয় চায় নতুন পোশাক, ব্যস্ত মেটিয়াবুরুজ

সল্টলেকের একে ব্লকের পুজোর সম্পাদক রাজা বণিক বললেন, ‘‌আমাদের পুজো এবার আড়ম্বরহীন। কোনও জৌলুস থাকবে না। চারদিক খোলা মণ্ডপ থাকবে। কোনও ভিড় হবে না। দূর থেকে সবাই প্রতিমা দেখবেন।’‌ সেইসঙ্গে জানালেন, চলতি বছরে বহু পরিচিত মানুষকে হারিয়েছেন, তাই এবছর স্বল্প পরিসরে পুজো হবে। সবাই প্রার্থনা করবেন, ভয়াবহ করোনাপর্ব যেন বিদায় নেয়। তারপর আবার বড় করে আগের মতো পুজো হবে।

প্রতিবছরই কচিকাঁচাদের জন্য থিম তৈরি হয় সল্টলেক এফডি ব্লকে। গালিভার ট্রাভেল্‌সের পর গতবছর জাঙ্গলবুক থিম করা হয়েছিল। দশমীর দিন অগ্নিকাণ্ডে ছাই হয়ে গিয়েছিল গোটা মণ্ডপ। তারপর এল করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। ব্লকের কেউ আর ধুমধাম করে পুজো চাইছেন না, জানালেন সম্পাদক প্রদীপবাবু। বললেন, ‘‌এবছর ছোট করে পুজো হবে। মায়ের কাছে একটাই প্রার্থনা যেন থার্ড ওয়েভ না আসে।’ঢাকুরিয়া বাবুবাগানের পুজোরও প্রস্তুতির বৈঠক হয়েছে এদিন। পুজোর দিনগুলোয় ভিড় নিয়ন্ত্রণ, করোনাবিধি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ভিড পরিস্থিতিতে পুজোর সামগ্রিক পরিকল্পনা নিয়ে চূড়ান্ত কাজকর্ম চলছে।উত্তর কলকাতার রাজবল্লভপাড়ার পুরনো পুজো জগৎ মুখার্জি পার্ক সার্বজনীন এবছর আয়োজন, আড়ম্বর, সব কমিয়ে দিয়েছে। কমেছে বাজেটও। কলকাতার বেশিরভাগ বড় বারোয়ারি পুজো কমিটির উদ্যোক্তাদের এখন এটাই মত। সংক্রমণ প্রতিরোধের তাগিদে সরকার যেসব নিয়ম-বিধি চালু করতে যাচ্ছে, সেসবও তাঁরা মেনে চলতে তৈরি। অনেকেই যেমন এখনই ভেবে ফেলেছেন কী কী সাবধানতা তাঁরা নেবেন। অনেক কমিটি পরিকল্পনা করেছে দর্শনার্থীদের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণের। যেভাবে সুপার মার্কেট, শপিং মল, বা ব্যাঙ্কে এখন নির্দিষ্ট কয়েকজনের বেশি একসঙ্গে ঢুকতে দেওয়া হয় না, বা দূরত্ব রেখে দাঁড়াতে হয়, এবছর সেরকমই বন্দোবস্ত করা হবে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like