Latest News

ডিএ মামলায় বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করবে কলকাতা হাইকোর্ট

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত ৯ সেপ্টেম্বর রাজ্য সরকারি কর্মচারী মহার্ঘ ভাতা তথা ডিএ (Dearness Allowance –DA) নিয়ে মামলার শুনানি শেষ হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টে (Kolkata High Court)। তার পর রায় দান (verdict) স্থগিত রেখেছিল বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন ও বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চ। কাল বৃহস্পতিবার তাঁরা ওই মামলার চূড়ান্ত রায় (Verdict) ঘোষণা করবেন।

ডিএ নিয়ে দুটি মামলার শুনানি হয়েছে আদালতে। এর আগে কলকাতা হাইকোর্ট ডিএ নিয়ে মাইলফলক রায় ঘোষণা করেছিল। সেই রায়ে বলা হয়েছিল, তিন মাসের মধ্যে বকেয়া ডিএ পরিশোধ করতে হবে রাজ্য সরকারকে। কিন্তু রাজ্য সরকার ৯০ দিন পেরিয়ে গেলেও তা না দেওয়ায় আদালত অবমাননার মামলা দায়ের হয়। সেই সঙ্গে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ওই রায় পুনর্বিবেচনার জন্য আদালতে পিটিশন দাখিল করা হয়েছিল।
মামলাকারীদের পক্ষে আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্য বলেছেন, হাইকোর্টই রায় দিয়েছিল যে ডিএ দয়ার দান নয়। তা হল রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের অধিকার। তাহলে রাজ্য সরকার কেন তা দেবে না? সেইসঙ্গে বিকাশবাবু আরও বলেছেন, মূল্য সূচকের ভিত্তিতে সমস্ত রাজ্য সরকার ডিএ দেয়। তাহলে বাংলায় কেন তা থেকে বঞ্চিত হবেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা?
তবে রাজ্যের বক্তব্যও রয়েছে। অ্যাডভোকেট জেনারেল সৌমেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় হাইকোর্টে শুনানির সময়ে বলেছিলেন, মূল্য সূচকের ভিত্তিতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের যে ডিএ পাওয়া উচিত তা তাঁরা পান। ফলে নতুন করে দেওয়ার প্রয়োজন নেই।তাঁর যুক্তি, ষষ্ঠ ও সপ্তম বেতন কমিশনের সুপারিশ রাজ্য সরকার গ্রহণই করেনি। কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দেওয়ার বিষয়টি যখন রাজ্য সরকার গ্রহণই করেনি তখন বকেয়ার প্রশ্ন আসছে কোথা থেকে।
এর আগে একাধিক বার এই ডিএ মামলা স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল তথা স্যাট ও হাইকোর্টে ঘুরপাক খেয়েছে। তারপর স্যাটের রায়ই বলবৎ করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। কিন্তু রাজ্য সরকার তা পুনর্বিবেচনার আর্জি জানিয়েছে। এখন দেখার বৃহস্পতিবার কী রায় দেয় হাইকোর্ট।

ডিএ মামলার শুনানি শেষ, রায়দান স্থগিত রাখল হাইকোর্ট

You might also like