Latest News

সিপিএমের সঙ্গে দহরম মহরম, কেরলের প্রবীণ নেতা থমাসকে বহিষ্কার করল কংগ্রেস

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজস্থানের উদয়পুরে শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে কংগ্রেসের চিন্তন শিবির। সেখান থেকেই কেরল (Kerala) কংগ্রেসের সভাপতি কে সুধাকরণ প্রেস বিবৃতি দিয়ে রাজ্যের প্রবীণ নেতা কেবি থমাসকে (K V Thomas) দল থেকে বহিষ্কারের কথা ঘোষণা করলেন।

বেশ কিছুদিন ধরেই রাজ্যের কংগ্রেস (Congress) নেতাদের সঙ্গে থমাসের বিরোধ চলছিল। তার সঙ্গে যুক্ত হয় সিপিএমের (CPM) সঙ্গে তাঁর বিশেষ সম্পর্ক।

গত মাসে তিনি দলের নির্দেশ অগ্রাহ্য করে চলে যান সিপিএমের একটি সেমিনারে। কান্নুরে পার্টি কংগ্রেস উপলক্ষ্যে মার্কসবাদী কমিউনিস্ট পার্টি মোদী সরকারের আর্থিক নীতি এবং কেন্দ্র-রাজ্য সম্পর্ক নিয়ে সেমিনারের আয়োজন করেছিল। সেই যাত্রায় দলের হুইপ অগ্রাহ্য করা সত্ত্বেও তাঁকে ক্ষমা করে দেওয়া হয়েছিল।

কিন্তু দু’দিন আগে তিনি থিককাকারা বিধানসভার উপ নির্বাচনে সিপিএম প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার সভায় উপস্থিত ছিলেন। ওই মঞ্চেই ছিলেন সিপিএমের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।

এই ঘটনায় ক্ষিপ্ত কংগ্রেস নেতৃত্ব তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিল। এই সিদ্ধান্তকে দলে শৃঙ্খলা রক্ষার নজিরবিহীন পদক্ষেপ হিসাবে দেখছে রাজনৈতিক মহল। কারণ, উদয়পুরে দল চিন্তন শিবিরে ব্যস্ত থাকা সত্বেও থমাসের মতো প্রবীণ নেতা ও প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে রেওয়াত করল না। বহিষ্কারের সিদ্ধান্তও ঘোষণা হল সেখান থেকে।

যদিও পাঁচ বারের সাংসদ থমাসের বক্তব্য, তিনি কংগ্রেসের নেতা হিসাবেই ওই সভায় গিয়েছিলেন ধর্মনিরপেক্ষতা রক্ষার স্বার্থে।

বস্তুত কংগ্রেসের রাজ্য ও কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের সঙ্গে এই প্রবীণ কংগ্রেস নেতার বিরোধের মূল কারণ, তিনি দলের বিরুদ্ধে নরম হিন্দুত্বের অভিযোগ তুলেছেন। রাহুল গান্ধীর কথায় কথায় মন্দিরে মন্দিরে মাথা ঠোকা নিয়ে বারে বারেই প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। রাহুল এখন কেরলের সাংসদ। ফলে থমাসের সমালোচনা কেরল কংগ্রেসে বাড়তি মাত্রা পেয়েছে।

উপমুখ্যমন্ত্রীর ছেলের মাতলামি, হোটেলে ঢুকে হেনস্থা সাংসদদের, তাণ্ডব রাস্তাতেও, মুখে কুলুপ গেরুয়া শিবিরের

You might also like