Latest News

অন্তঃসত্ত্বাকে মাটিতে ফেলে লাথি! করাচির ভিডিও ভাইরাল, ক্ষোভে ফেটে পড়ছেন নেটিজেনরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাকিস্তানের (Pakistan) করাচিতে (Karachi) এক গর্ভবতী (Pregnant women) পরিচারিকাকে লাথি (kicked) মারার অভিযোগে কিছু সিকিউরিটি গার্ডকে (Security Guard) গ্রেফতার করল পুলিশ। ওই লাথি মারার ভিডিও সামনে আসতেই পাকিস্তানের মহিলা নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি বহুতলের নীচে দাঁড়িয়ে আছেন মহিলা। একটি সিকিউরিটি গার্ডের সঙ্গে তাঁর কথা কাটাকাটি হতে দেখা যাচ্ছিল। হঠাৎই ওই মহিলাকে একটি চড় মারে গার্ড। চড় খেয়ে মাটিতে পড়ে যান ওই মহিলা। তারপর আবার যখন উঠে দাঁড়াতে যান, তাঁকে সমানে লাথি মারতে থাকে গার্ড। মারের চোটে অজ্ঞান হয়ে যান ওই গর্ভবতী।

জানা যায়, ওই বহুতলের একটি বাড়িতে পরিচারিকার কাজ করেন ওই মহিলা। তিনি ৫ মাসের গর্ভবতী। তাঁর বড় ছেলেকে খাবার নিয়ে আসার জন্য বলেছিলেন ওই মহিলা। সেই খাবার নিয়ে যখন তাঁর ছেলে ওই আবাসনে আসেন তখন গার্ডরা তাঁর ছেলেকে ভিতরে ঢুকতে দেয় না। তাই শুনে নীচে নেমে আসেন মহিলা। তারপর শুরু হয় অশান্তি। তা থেকেই ওই মহিলাকে মারতে শুরু করে গার্ড।

মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলি শাহ ঘটনার পূর্নাঙ্গ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। পুলিশ ওই আবাসনের গার্ডদের গ্রেফতার করেছে।

পাকিস্তান মহিলা সুরক্ষা নিয়ে বহুদিন ধরেই অনেক কথা বলা আসছে। কিন্তু শুধু জুন মাসের রিপোর্টেই দেখা যাচ্ছে, ১৫৭ জন মহিলা কিডন্যাপ হয়েছেন, ১১২ জন মহিলাকে শারীরিক ভাবে হেনস্থা করা হয়েছে, ৯১ জন মহিলা ধর্ষিত হয়েছেন।

শুধু পাকিস্তান নয়, মেয়েদের উপরে এই অত্যাচারের ঘটনা কমবেশি সব জায়গায় একই। দুঃখের বিষয়, এই তথাকথিত সভ্য দুনিয়ায় আজও মেয়েরা সুরক্ষিত নয়।  

অগ্ন্যুৎপাতের মধ্যে দেখা দিল ‘নরকের বিড়াল’! বিরল দৃশ্য দেখে চোখ কপালে উঠল নেট নাগরিকের

You might also like