Latest News

কল্যাণের মুখে বদলার কথা, ধোলাই পেটাইয়ের স্লোগান তৃণমূলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ২০১১ সালের নির্বাচনের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) তথা তৃণমূল কংগ্রেস (TMC) স্লোগান দিয়েছিল, ‘বদলা নয়, বদল চাই’। অর্থাৎ বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছিল, বাংলায় বদলের আকাঙ্ক্ষা তৈরি হয়েছে কিন্তু আশঙ্কার প্রয়োজন নেই যে বদলা হবে। ১১ বছর পর যখন চুরি, দুর্নীতির অভিযোগে বিদীর্ণ তৃণমূল, গ্রেফতার হচ্ছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee), অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) মতো প্রথম সারির নেতারা ঠিক সেই সময়ে দিদির দেওয়া সেই স্লোগানকে ‘ভুল’ বলে আক্ষেপ করলেন শ্রীরামপুরের সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় (kalyan Banerjee)।

শনিবার চুঁচুড়া ঘড়ির মোড়ে হুগলি জেলা তৃণমূলের সমাবেশে কল্যাণ বলেন, ‘সেদিন বলা উচিত ছিল বদলা হবে।’ তাঁর কথায়, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হৃদয়টা অনেক বড়। তাই তিনি সে কথা বলেছিলেন। কিন্তু এই সিপিএম, বিজেপি, কংগ্রেস যে নোংরামি শুরু করেছে তারা সেই কথার মানে বোঝেনি।”

দেশ সম্পর্কে নিজের অনুভূতি টুইট করলেন মমতা, জানতে চাইলেন পাঁচজনের অভিমত

কল্যাণ আরও বলেন, “এর মানে এই নয় যে বদলা নেওয়া হবে। কিন্তু যদি বিধায়ক, সাংসদ, কাউন্সিলর বা কোনও জনপ্রতিনিধির গায়ে হাত পড়ে তাহলে তৃণমূলের কর্মীরাও প্রস্তুত রয়েছেন। বিরোধীরা যেন সেটা খেয়াল রাখে।”

কল্যাণের কথার প্রতিক্রিয়ায় সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, “কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় গলার রগ ফুলিয়ে অনেক কথা বলতে পারেন, কিন্তু বাস্তব হল টাকা মেরে দেওয়া তৃণমূলের নেতাকে না পেয়ে তাঁর ছেলেকে গণপ্রহার খেতে হচ্ছে। আমরা এই গণপ্রহারকে সমর্থন করি না। বাবার পাপ ছেলের ঘাড়ে দেওয়াকেও সমর্থন করি না। কিন্তু মানুষের মেজাজ এটাই। তৃণমূলের যাঁরা পিসি-ভাইপোর পাপ নিতে চান না, তাঁরাও আস্তে আস্তে সরে যাবেন। লড়াই হবে চোর বনাম বাংলার মানুষের।”

ওই মঞ্চ থেকেই চুঁচুড়ার তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার স্লোগান দিয়ে হুঁশিয়ারি দেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে স্লোগান হলে ধোলাই হবে পেটাই হবে।”

পর্যবেক্ষকদের মতে, পার্থ-অনুব্রতর গ্রেফতারের পর যখন তৃণমূলকর্মীদের মনোবল কিছুটা হলেও ধাক্কা খেয়েছে তখন এই নেতারা হয়তো চাইছেন ভোকাল টনিক দিয়ে দলকে চাঙ্গা করতে। কিন্তু তা কতটা কাজ করবে সেটা ভবিষ্যৎই বলবে।

You might also like