Latest News

মামাতো ভাইকে নৃশংস হত্যা! নিহতের কাটা মাথা নিয়ে সেলফি তুলল খুনির বন্ধুরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জমি বিবাদের জেরে মামাতো ভাইকে মাথা কেটে খুন (murder) করার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, এরপর সেই ব্যক্তির বন্ধুরা মিলে কাটা মাথাটি নিয়ে সেলফিও (selfie) তোলে। এই ঘটনার জেরে তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়েছে ঝাড়খণ্ডের (Jharkhand) খুন্তি জেলার মুরহু এলাকায়। নিহত ব্যক্তির নাম কানু মুণ্ডা (২৪)। অভিযুক্ত সাগর মুণ্ডা (২০) ও তার বন্ধুদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, গত ২ ডিসেম্বর নিহতের বাবা দাসাই মুণ্ডা থানায় গিয়ে তাঁর ছেলেকে অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেছিল। ওই ব্যক্তির এফআইআরের ভিত্তিতে রবিবারই প্রধান অভিযুক্ত এবং তার স্ত্রী-সহ মোট ৬জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

জানা গেছে, সেই এফআইআরে অভিযোগকারী বলেন, গত ১ ডিসেম্বর তাঁর ছেলে কানু মুণ্ডা বাড়িতে একাই ছিল। বাকিরা সবাই কাজের জন্য ধান খেতে ছিলেন। সন্ধ্যায় তিনি যখন বাড়ি ফেরেন, তখন এক গ্রামবাসী তাঁকে জানান, তাঁর ভাগ্নে সাগর মুণ্ডা ও তার বন্ধুরা কানুকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে চলে গেছে। এরপর একদিন ধরে তাঁকে তন্নতন্ন করে খুঁজেও না পাওয়ায় পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন।

অভিযোগ পেতেই ওই ব্যক্তিকে ধরতে খুন্তি মহকুমার পুলিশ অফিসার অমিত কুমারের নেতৃত্বে একটি দল গঠন করা হয়। তল্লাশি চালিয়ে পাকড়াও করা হয় অভিযুক্তদের। তাদের জেরা করতেই কানুকে খুনের কথা স্বীকার করেন অভিযুক্তরা। এরপর ধড়টি কুমাং গোপলা জঙ্গলে কানুর দেহ এবং প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে দুলওয়া তুংরি এলাকায় মাথা উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন মুরহু থানার অফিসার ইনচার্জ চূড়ামণি টুডু।

পরে তিনি বলেন, কানুকে কুপিয়ে খুন করার পর খুনির বন্ধুরা ওই কাটা মাথার সঙ্গে সেলফি-ও তুলেছিল। কতটা নৃশংস হলে এমন কাজ করা যায়, সেটাই ভাবাচ্ছে। জানা গেছে, নিহতের দেহের কাজ থেকে পাঁচটি মোবাইল ফোন, দুটি রক্তমাখা ধারালো অস্ত্র, একটি কুড়ুল এবং একটি এসইউভি গাড়ি পাওয়া গেছে। সামান্য জমি নিয়ে বিবাদে এমন নৃশংস হত্যার ঘটনায় শিউরে উঠছেন গ্রামবাসীরা।

ড্রামে ভরা মহিলার দেহের টুকরো! কর্নাটকেও শ্রদ্ধা-কাণ্ড ঘটেছিল এক বছর আগে

You might also like