Latest News

আপের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী স্থির হবে টেলি ভোটিং-এর মাধ্যমে, পাঞ্জাবে ঘোষণা কেজরিওয়ালের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ‘জনতা চুনেগা আপনা সিএম’। ‘Janta chunega apna CM’। পাঞ্জাবে (Punjab) ভোটের আগে এমনই জানাল আপ (AAP)। তাদের বক্তব্য, আপ জিতলে কে মুখ্যমন্ত্রী হবেন, তা সাধারণ মানুষই স্থির করবেন। সেজন্য বৃহস্পতিবার দলের পক্ষ থেকে একটি নম্বর দেওয়া হয়েছে। পাঞ্জাবের সাধারণ মানুষের উদ্দেশে আহ্বান জানানো হয়েছে, আপনারা ৭০৭৪৮৭০৭৪৮ নম্বরে ফোন করুন। আমাদের জানান, কাকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান। আপ থেকে টুইট করে বলা হয়েছে, এত মানুষ ওই নম্বরে ফোন করছেন যে, লাইন জ্যাম হয়ে গিয়েছে।

আপের শীর্ষ নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানিয়েছেন, টেলি ভোটিং-এর ভিত্তিতে আগামী ১৭ জানুয়ারি তিনি দলের মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থীর নাম ঘোষণা করবেন। তিনি বলেন, এই প্রথমবার কোনও পার্টি জনসাধারণকে নিজেদের মুখ্যমন্ত্রী বেছে নেওয়ার সুযোগ দিচ্ছে।

কেজরিওয়ালের কথায়, “পাঞ্জাবের মানুষ একটি নির্দিষ্ট নম্বরে ফোন করতে পারেন। হোয়াটস অ্যাপও করতে পারেন। তাঁরা জানান, মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে কাকে চাইছেন। নম্বরটি ১৭ জানুয়ারি বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত খোলা থাকবে। আমরা দেখব সাধারণ মানুষ কাকে মুখ্যমন্ত্রী পদে চাইছেন।” পাঞ্জাবের আপের একটি নির্বাচনী পোস্টারে লেখা হয়েছে, ‘জনতা চুনেগি আপনা সিএম, কল ৭০৭৪৮৭০৭৪৮ ।’

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন হবে পাঞ্জাবে। আপ সূত্রে খবর, দলের সাংসদ ভগবন্ত মান আশা করেছিলেন, তিনিই এবার মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হবেন। কিন্তু টেলি ভোটিং হওয়ায় তিনি আশাহত হয়েছেন। ভগবন্ত মানকে নিয়ে প্রশ্ন করলে কেজরিওয়াল বলেন, “তিনি আমার ছোট ভাইয়ের মতো। তিনি আপের একজন বড় নেতা। আমি আগে বলেছিলাম, তাঙ্কেই মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী করা হোক। কিন্তু তিনি বলেছেন, জনতা বেছে নিক, কে মুখ্যমন্ত্রী হবেন।”

পাঞ্জাব বিধানসভা ভোটে এবার চতুর্মুখী প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। কংগ্রেস, আপ, বিজেপি ও অমরিন্দর সিং-এর দলের জোট এবং অকালি দলের জোট, এই চারটি শিবির লড়াই করবে পরস্পরের মধ্যে। পর্যবেক্ষকদের ধারণা, আপ ভালো ফল করতে পারে। ২০১৭ সালের বিধানসভা ভোটে ৭৭ টি আসন পেয়ে জিতেছিল কংগ্রেস। ১১৭ আসন বিশিষ্ট বিধানসভায় দ্বিতীয় স্থানে ছিল আপ।

You might also like