Latest News

স্কুলপড়ুয়াদের স্যাটেলাইট নিয়ে ওড়া ‘ছোট্ট’ রকেট কেন পথ ভুল করল! কী বলছে ইসরো?

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রবিবার সকালে শ্রীহরিকোটার মহাকাশ বন্দর থেকে ক্ষুদ্রতম রকেট (Smallest Rocket) উৎক্ষেপণ (Launch) করেছিল ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অরগানাইজেশন বা ইসরো (ISRO)। ইসরোর ক্ষুদ্রতম এই রকেটের মধ্যে থাকা একটি বিশেষ স্যাটেলাইট (Satellite) বানিয়েছিল ৭৫০ জন ছাত্রছাত্রী (Students)। ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর উপলক্ষে স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের দিয়ে এই স্যাটেলাইট বানানো হয়েছিল। কিন্তু বেলা বাড়তেই এল দুঃসংবাদ। ইসরোর তরফে জানানো হয়েছে, ভুল করে অন্য কক্ষপথে (Orbit) পৌঁছে গেছে রকেটটি, ফলে তা আর কাজ করবে না।

ইসরো জানিয়েছে, এই মিশনের যে লক্ষ্য ছিল, তা আর পূরণ করা সম্ভব হবে না। একাধিক টুইট করে এই বিষয়ে বার্তা দিয়েছে ভারতের এই মহাকাশ গবেষণা সংস্থা। ‘SSLV-D1 রকেটটি ৩৫৬ কিলোমিটার সার্কুলার কক্ষপথের পরিবর্তে ৩৫৬ কিলোমিটার x ৭৬ কিলোমিটার এলিপ্টিক্যাল কক্ষপথে পৌঁছে দিয়েছে স্যাটেলাইটগুলিকে। সেগুলি আর ব্যবহার করা যাবে না। সমস্যা ধরতে পারা গেছে। সেন্সরের ব্যর্থতা ধরতে না পেরে উদ্ধার অভিযান চালানোর জন্যই এই কক্ষচ্যুতি ঘটেছে। একটি দল এই বিষয়ে পর্যালোচনা করে মত দেবে। সেই মতামত কাজে লাগিয়ে শিগগিরই SSLV-D2 নিয়ে ফেরত আসবে ইসরো,’ টুইটারে জানিয়েছে সংস্থাটি।

ইসরোর এই ক্ষুদ্রতম রকেট বা স্মল স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকলটি লম্বায় ৩৪ মিটার। এর ভেহিকল ডায়ামিটারের দৈর্ঘ্য ২ মিটারের বেশি নয়। খুব অল্প সময়ের সময়ে এই রকেটটি বানানো হয়েছিল বলে জানিয়েছিলেন ইসরোর প্রাক্তন প্রধান ডঃ মাধবন নায়ার। এই মিশনটিকে বেশ জটিল বলেই দাবি করেছিলেন তিনি। তৃতীয় পর্যায় পর্যন্ত সবকিছু ঠিকঠাকই চলছিল। কিন্তু শেষ পর্যায়ে গিয়েই নষ্ট হয়ে গেল দেশের সেরা মহাকাশ বিজ্ঞানী ও খুদে স্কুলপড়ুয়াদের যৌথ প্রচেষ্টা। তবে শিগগিরই নতুন রকেট উৎক্ষেপণ করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে ইসরো।

৭৫০ স্কুলপড়ুয়ার তৈরি স্যাটেলাইট নিয়ে ইসরোর রকেট গেল মহাকাশে! ক্ষুদ্রতম মহাকাশযান এটাই

You might also like