Latest News

হিজাব বিরোধী আন্দোলনে যোগ, ইরানে তরুণ শেফকে পিটিয়ে মারল পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ইরানে (Iran) হিজাব বিদ্রোহের আগুন এখনও দাউদাউ করে জ্বলছে। প্রতিবাদ চলছে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। এবার সেই হিজাব বিরোধী আন্দোলনে (Anti-Hijab Protests) যোগ দেওয়ার ‘অপরাধ’-এ ইরানের তরুণ শেফ (chef) মেহরশাদ শাহিদিকে পিটিয়ে মারল সেদেশের রেভোলিউশনারি গার্ড ফোর্স (police)। উল্লেখ্য, যেদিন তাকে পিটিয়ে মারা হয় তার একদিন পরেই ২০ বছরে পা দিতেন শাহিদি। সম্প্রতি ভীষণ জনপ্রিয় হয়েছিলেন তিনি। গত কয়েকদিন ধরে লাগাতার হিজাব বিরোধী আন্দোলনে যোগ দেওয়াই তার কাল হল বলে মনে করছেন অনুরাগীরা।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর হিজাব না পরায় ইরানে নীতি পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন ২২ বছরের তরুণী মাহসা আমিনি। এরপর থানার মধ্যে ভয়াবহ মারে মৃত্যু (death) হয় তাঁর। সেই থেকেই প্রতিবাদের আগুন জ্বলছে ইরানে। রাস্তার মোড়ে মোড়ে বিক্ষোভ বর্তমানে ইরানের চেনা ছবি। এবার সেই হিজাব-বিরোধী আন্দোলনে যোগ দেওয়ায় ২৫ অক্টোবর শাহিদিকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ।

হেফাজতে নিয়ে যাওয়ার পর মাহসার মতো তাকেও বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। জানা গিয়েছে, সেই মারেই খুলিতে আঘাত পান তিনি। এর জেরেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর। শাহিদির পরিবারের দাবি, তাঁদের ছেলের পুলিশের মারে নয়, বরং হৃদরোগে মৃত্যু হয়েছে বলার জন্য চাপ দিচ্ছে প্রশাসন। কিন্তু তাঁরা ছেলের মৃত্যুর সঠিক বিচার চান বলেই সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন।

এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ শাহিদির অনুরাগীরাও। তার মৃত্যুতে ইরানে নতুন করে অশান্তির আগুন ছড়াতে পারে বলেও আশঙ্কা করছে প্রশাসন। ২৯ অক্টোবর শাহিদির শেষকৃত্যের পর বিক্ষোভ মিছিলে পা মিলিয়েছিল হাজার হাজার মানুষ। অনেকের মতে, এই ঘটনায় ইরানের হিজাব বিরোধী আন্দোলন আরও জোরালো হয়ে উঠতে পারে। এমনকি সেদেশের বর্তমান সুপ্রিম লিডার আয়াতল্লা আলি খামেনেই এবং প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিকে ক্ষমতাচ্যুত করার প্রবল দাবি উঠছে।

হলুদ ব্রাজিলে ফের লালঝান্ডার জয়, ‘লাতিন ট্রাম্প’কে হারিয়ে কামব্যাক লুলার

You might also like