Latest News

iPod: আইপডের অপমৃত্যু! দুই দশকের নস্টালজিয়া থামল, বিবৃতি দিয়ে জানাল অ্যাপল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছোটবেলায় মধ্যবিত্তের ঘরের ছেলেমেয়েদের একটা কমন শখ ছিল এই কয়েকবছর আগেও। না, কোনও স্মার্ট ফোনের জন্য বাবা-মায়ের কাছে বায়না তারা করত না। বেশিরভাগেরই কাম্য ছিল একখানা আইপড (iPod)। পকেটে আইপড নিয়ে ঘোরা, বন্ধুবৃত্তে সেই ‘দামী’ বিলাসিতার প্রদর্শন যেন স্বপ্ন ছিল সকলের। ছোট্ট এই ডিভাইসে কতই না গান ভরা থাকত… ইচ্ছে করলেই পছন্দের গানে ডুব দেওয়া যেত অনায়াসে।

ipod

আরও পড়ুন: কোভিড কেড়েছে কত প্রাণ? পাঁচ রাজ্যের তথ্যেও প্রশ্নের মুখে মোদী সরকারের দাবি

অ্যাপল (Apple) কোম্পানির প্রসিদ্ধ সেই ডিভাইসের অপমৃত্যু হল মঙ্গলবার। হাজার হাজার তরুণ-তরুণীর ছোটবেলার স্মৃতি জড়িয়ে থাকা আইপড (iPod) বিলুপ্ত হল। অ্যাপল ঘোষণা করে জানিয়ে দিল এই ডিভাইস তারা আর বানাবে না।

অ্যাপলের আইপডের শেষ মডেলটি ২০০৭ সালে বেরিয়েছিল। সেই মডেলের নাম ছিল ‘আইপড টাচ’। টাচ স্ক্রিনের সেই আইপডে শুধু গান নয়, থাকত ভিডিও, ছবি ও বিভিন্ন অ্যাপের বন্দোবস্ত। ৬৪ গিগাবাইট জায়গা ছিল সেই আইপডে। মঙ্গলবার অ্যাপল ঘোষণা করেছে তারা আইপড টাচ বন্ধ করে দেবে। বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, আর নতুন করে কোনও আইপড তৈরি করবে না তারা।

ipod

আইপডের (iPod) পুরনো দিনের কথা

২০০১ সালে প্রথম বাজারে এসেছিল আইপড (iPod)। তখন হাতে হাতে স্মার্টফোন তো দূর, সাধারণ মোবাইল ফোনও থাকত না বেশিরভাগ মানুষের কাছে। সেই বাজারে আইপড ছিল প্রযুক্তির এক অত্যাধুনিক চমকের মতো। যারা দুর্মূল্য ডিভাইসটি হাতে পেয়েছিলেন, তারা সেটা নিয়ে ঠিক কী করবেন ভেবেই পেতেন না।

ipod

আইপড ছিল মূলত গান শোনার ডিভাইস, তবে তাতে ছবি বা ভিডিও তোলার বন্দোবস্তও ছিল। এহেন আইপড সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ব্যাকডেটেড হয়ে পড়ে। অ্যাপল বাজারে আনে আইফোন। দিন যত এগিয়েছে হাতে হাতে স্মার্টফোন চলে এসেছে। আইপডে যা আছে, স্মার্টফোনে রয়েছে তার কয়েকগুণ বেশি সুযোগ-সুবিধা। তাই ধীরে ধীরে প্রযুক্তির অন্যান্য আবিষ্কারগুলোর ছায়ায় ঢাকা পড়েছে আইপড। অ্যাপলেরই অন্যতম সৃষ্টি আইফোন এসে ম্লান করে দিয়েছে আইপডকে। দুই দশক ধরে বিশ্বের বাজারে দাপিয়ে বেড়ানোর পর অবশেষে তাই বিদায় নিল মজাদার এই ডিভাইস (iPod)।

আরও পড়ুন: করোনার মতোই প্রাণঘাতী হয়ে ফিরে আসছে নিপা ভাইরাস, সতর্কতা জারি কেরলে

ipod

অ্যাপলের ভাইস প্রেসিডেন্ট গ্রেগ জোসওয়াইক এদিন জানান, আইফোন থেকে শুরু করে, অ্যাপল ওয়াচ, হোমপড মিনি, ম্যাক, আইপ্যাড, অ্যাপল টিভি- আমাদের সমস্ত প্রোডাক্টেই মিউজিকের দারুণ রোমাঞ্চ অনুভূত হয়। এবার আইপড আমরা বন্ধ করে দিচ্ছি।

স্টিভ জোবস আইপড প্রথম বাজারে এনেছিলেন। সেসময় বিশ্বের বাজারে অ্যাপল কোম্পানির অবস্থা খুব একটা ভাল ছিল না। সেই দুর্দশার মাঝে অ্যাপলের হাল ফিরিয়েছিল আইপড, এবার তার বিদায়ের পালা।

You might also like