Latest News

‘খুনি’ পুতিন, ভোটে কলকাঠি নেড়ে হারাতে চেয়েছিল, শিগগির বড় মূল্য চোকাতে হবে: বাইডেন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্র দ্বন্দ্ব ফের চরমে।

প্রেসিডেন্টের গদিতে বসার পরে পুতিনের সঙ্গে প্রথম ফোনালাপে বেশ নরমে গরমে কথাবার্তাই হয়েছিল দুই দেশের প্রেসিডেন্টের। কিন্তু এবারে একেবারে খোলাখুলি হুমকি দিলেন জো বাইডেন। তাঁর বক্তব্য, পুতিন ‘খুনি’ । রাশিয়ার বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনিকে বিষ খাইয়ে খুনের চেষ্টা করেছেন। আমেরিকার ভোটেও প্রভাব খাটিয়েছেন। এর জন্য খুব তাড়াতাড়ি বড় মূল্য চোকাতে হবে পুতিনকে।

২০১৬ সালে আমেরিকার নির্বাচনে প্রভাব খাটিয়ে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টনকে হারানোর চেষ্টা করেছিল রাশিয়া, এমনই অভিযোগ উঠেছিল রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বিরুদ্ধে। একই অভিযোগ ওঠে কুড়ি সালের নির্বাচনেও। বাইডেনের অভিযোগ, সাইবার গুপ্তচরদের দিয়ে গোপন তথ্য বাইরে আনার চেষ্টা করেছিল রাশিয়া। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রভাব খাটিয়ে তাঁকে হারানোর চেষ্টাও হয়। আর এই কাজে ট্রাম্প-ঘনিষ্টদের সমর্থন ছিল বলেও অভিযোগ করেছেন বাইডেন।

এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বাইডেন বলেন, বক্তব্য, ডোনাল্ড ট্রাম্প যে পথে হেঁটে রাশিয়ার প্রতি অনুগত ছিল, বাইডেন প্রশাসন সে পথে হাঁটবে না। বরং নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য পুতিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বাইডেন বলেন, ভোটে তাঁকে হারানোর চেষ্টাই শুধু নয়, তাঁর গায়ে কাদা ছোড়ার চেষ্টা করেছিল রাশিয়া। তাঁর ভাবমূর্তি খাটো করার জন্য বিভ্রান্তিকর ও ভিত্তিহীন খবর ছড়িয়েছিল মস্কো। পুতিনের উদ্দেশ্য ছিল তাঁকে ও তার ডেমোক্র্যাট দলকে কালিমালিপ্ত করা। ট্রাম্পকে জেতানোর জন্য তাঁর বিরুদ্ধে আমেরিকাবাসীর মনকে বিষিয়ে দেওয়ার লক্ষ্যই ছিল পুতিনের।

নাভালনির গ্রেফতারিতেও যে ওয়াশিংটন উদ্বিগ্ন সে কথাও সাফ জানিয়ে দেন বাইডেন। তিনি বলেন, পুতিন তো ‘খুনি’ । তাঁর বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলার জন্য নাভালনিকে খুন করার চেষ্টা হয়েছে। তাঁকে গ্রেফতার করাও হয়েছে। নাভালনির সমর্থকদের ওপর অত্যাচার করা হয়েছে। আফগানিস্তানে আমেরিকার সেনাদের হত্যার পরিকল্পনা নিয়েও সরব বাইডেন। পাশাপাশি, রাশিয়ার বিরুদ্ধে সাইবার গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগও তুলেছেন।

হোয়াই হাউসের পক্ষ থেকেও জানানো হয়েছে, ট্রাম্পের সঙ্গে গত চার বছর রাশিয়ার যে সম্পর্ক ছিল তা বজায় রাখার কোনও ইচ্ছাই নেই বাইডেন প্রশাসনের। বরং রাশিয়ার কর্মকাণ্ডের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারে আমেরিকা।

You might also like