Latest News

কোভিড ১৯ এর উত্স খুঁজতে হলে আমেরিকার ফোর্ট ডেট্রিকের ল্যাবে যাক হু, পাল্টা চিন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কোভিড ১৯ এর উত্স নিয়ে আমেরিকার লাগাতার চাপের মুখে চিনের বিদেশমন্ত্রক জানিয়ে দিল, যদি গবেষণাগারে তল্লাশি, তদন্ত করতেই হয়, তবে বিশ্ব  স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) কর্তারা ফোর্ট ডেট্রিকে যান! আমেরিকার মেরিল্যান্ডের ফোর্ট ডেট্রিক একটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটি।

মারণ ভাইরাসের উত্স চিহ্নিত করতে দ্বিতীয় দফায় চিনে তদন্তের দাবি উঠেছে। হু চলতি মাসেই বলেছে, আন্তর্জাতিক তদন্তের দ্বিতীয় পর্যায়ে চিনা ল্যাবগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করে অডিট করা হোক। পাশাপাশি আমেরিকাও উহান ইনস্টিটিউট অব ভাইরোলজিতে তদন্তের দাবিতে চাপ বাড়িয়ে যাচ্ছে। হু প্রধান টেড্রস আধানম ঘেব্রেইয়েসুসের প্রস্তাবের রূপরেখায় ২০১৯ এর ডিসেম্বরের প্রথম দিকে মানুষের দেহে সংক্রমণ হচ্ছিল যে  জায়গাগুলিতে, সেখানকার সংশ্লিষ্ট ল্যাব  ও গবেষণা  প্রতিষ্ঠানগুলিতে অডিট করার কথা বলা হয়েছিল। সঙ্গে সঙ্গে চিনা সহ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেন ইক্সিন জানান,  তিনি চরম বিস্মিত, এতে সাধারণ জ্ঞানের প্রতি অসম্মান, বিজ্ঞানের প্রতি উদ্ধত মনোভাব ফুটে উঠেছে। আর এবার চিনা বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ট্যুইট করলেন, ল্যাবে সত্যিই তদন্ত করতে হলে হু বিশেষজ্ঞদের ফোর্ট ডেট্রিকে যাওয়া উচিত। আমেরিকা স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করুক, যত দ্রুত সম্ভব সাড়া দিয়ে  ফোর্ট ডেট্রিকে হু বিশেষজ্ঞদের তদন্ত করার আমন্ত্রণ জানাক। গোটা দুনিয়াকে সত্যিটা প্রকাশ করা সম্ভব হতে পারে একমাত্র এভাবেই।

চিনা গবেষণাগার থেকে করোনাভাইরাস লিক হওয়ার ধারণা ও অভিযোগ গত কয়েক মাসে ক্রমশঃ জোরদার হয়েছে। বেজিং বারবার দাবি করেছে, তাদের কোনও ল্যাবরেটরি থেকে ভাইরাস লিক হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই অবাস্তব, হতেই পারে না। জানুয়ারিতে উহান সফর শেষে সেখানে হু  ও চিনা টিমের যৌথ অভিযানে পৌঁছনো সিদ্ধান্তের উল্লেখ করেছে চিন। তবে প্রথম দফার তদন্তের সময় অনেক প্রাথমিক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য শেয়ার করেনি বলে চিনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে হু।

এদিকে চিনা সরকারি নিয়ন্ত্রিত ট্যাবলয়েড গ্লোবাল টাইমস ইতিমধ্যেই আমেরিকার ল্যাবে তদন্ত, তল্লাসি চালানোর দাবিতে পিটিশনে ৫০ লাখ লোকের সই সংগ্রহ করেছে বলে জানিয়েছে।

 

 

 

You might also like