Latest News

লর্ডসে রাজকীয় বিদায় ঝুলনের! শেষ ম্যাচে ‘ঝুন্নুদি’কে জয় উপহার হরমনপ্রীতদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রূপকথার বিদায়। এমন বিদায় গল্পে হয়। ক্রিকেটের মক্কায় ব্যাট বল তুলে রাখলেন ঝুলন গোস্বামী (Jhulan Goswami)। জীবনের শেষ ম্যাচে তাঁর স্পেল দেখার মতো। ১০-৩-৩০-২। ঝুলন গোস্বামী। চাকদহ থেকে দৌড় শুরু করে থামলেন লর্ডসের মাঠে (India vs England)। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার আগে শেষ ম্যাচে তিনি নিজের জাত চিনিয়ে দিয়ে গেলেন। নিয়মরক্ষার ম্যাচে হরমনপ্রীতের ভারত ১৬ জিতল রানে।

হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসলেন ঝুলনরা। এদিন গোটা ম্যাচেই দাপট ছিল বোলারদের। বলা চলে ঝুলনের বিদায়বেলায় যেন তাঁর জন্যই এমন পিচ বানিয়ে দিয়েছিলেন। লর্ডসের আজকের পিচে যেমন দাপট দেখালেন পেসাররা, তেমনই সফল স্পিনাররাও।

এদিনের ম্যাচ জুড়ে ছিলেন শুধুই ঝুলন। তাঁর সতীর্থরা আজ তাঁকে নিয়ে যেন একটু বেশিই আবেগপ্রবণ। হবে নাই না কেন, এতদিন ধরে যে তিনি দলের সঙ্গে রয়েছেন। প্রয়োজনীয় টিপস দিয়েছেন অন্যান্য বোলারদের। কীভাবে বল গ্রিপ করতে হয়, কীভাবে থ্রো, সবই বুঝিয়ে দিয়েছেন। সেই ঝুন্নুদির শেষ ম্যাচ। এদিন ঝুলনকে নিয়ে টস করতে গিয়েছিলেন অধিনায়ক হরমনপ্রীত। যদিও অস্ট্রেলিয়ার কাছে টস হারেন। কিন্তু ম্যাচ যেতেন।

এদিন ব্যাট করতে নেমে প্রথম থেকেই ক্রিজে নড়বড়ে দেখিছে স্মৃতি মান্ধানাদের। একের পর এক উইকেট পড়তে থাকে। যদিও একদিকে প্রথম থেকে ক্রিজে টিকে থাকে স্মৃতি। তাঁর দাপুটে ৫০ রান ও শেষে দীপ্তি শর্মার ৬৮ রানের ইনিংসের জোরেই ভারত ৫০ ওভার শেষে পৌঁছয় ১৬৯ রানে।

তখন কে ভেবেছিলেন যে এই ম্যাচ জিতে নেবেন ভারতীয় মহিলা ব্রিগেড। ১৬৯ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৫৩ রানেই থামল ইংরেজ বাহিনী। সৌজন্যে অবশ্যই রেনুকা সিং। ৪ উইকেট নিয়ে জয়ের রাস্তা প্রশস্ত করে দেন তিনিই।

অবশ্যই আলাদা করে বলতে হয় বাংলার মেয়ের কথা। এটা ছিল যেন তাঁর অন্যতম স্বপ্নের স্পেল। উইকেট পেয়েছেন রাজেশ্বরী গায়কোয়াড ও দীপ্তি শর্মাও। এদিনের ম্যাচের সেরা রেনুকা হলেও ঝুলনই যেন শেষ কথা।

তিলোত্তমায় ঝুলন আবেগ, ইডেনে স্ট্যান্ড চাকদহ এক্সপ্রেসের নামে

You might also like