Latest News

মাটির নীচে জলের ট্যাঙ্কে থরে থরে টাকার বান্ডিল! হেয়ার ড্রায়ার দিয়ে শুকোলেন আয়কর কর্মীরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মাটির নীচে জলের ট্যাঙ্কের মধ্যে থরে থরে সাজানো রয়েছে নগদ টাকা। মাটি খুঁড়ে সেই টাকা উদ্ধার করতে রীতিমতো কালঘাম ছুটল আয়কর দফতরের কর্মীদের। মধ্যপ্রদেশের এই ঘটনায় ফের চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

জানা গেছে, মধ্যপ্রদেশের এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে এদিন হানা দেয় আয়কর বিভাগের আধিকারিকরা। তাঁর বাড়ি থেকে মোট ৮ কোটি নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। তার মধ্যে এক কোটি টাকা সযত্নে রাখা ছিল মাটির নীচে জলের ট্যাঙ্কের মধ্যে।

এছাড়াও ওই ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে মোট তিন কেজি সোনা পাওয়া গেছে বলেও জানিয়েছেন আয়কর দফতরের কর্মীরা। একটি ভিডিওতে দেখা গেছে জলের ট্যাঙ্ক থেকে পাওয়া ওই নগদ টাকা শুকনো করার চেষ্টা করছেন তাঁরা। কেউ আয়রনের সাহায্য নিচ্ছেন, কেউ আবার জলে ভেজা টাকা শুকোনোর জন্য হেয়ার ড্রায়ারের আশ্রয় নিয়েছেন। টানা ৩৯ ঘণ্টা তল্লাশির পর সমস্ত টাকা আর সোনা উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে বলে খবর। অভিনব কায়দায় লুকিয়ে রাখা টাকা দেখে তাজ্জব আয়কর বিভাগের অফিসাররাও। সূত্রের খবর, ওই ব্যবসাইয়ীর নাম শঙ্কর রাই। মধ্যপ্রদেশের দামোহ জেলার বাসিন্দা তিনি।

রাই পরিবারের সম্পত্তির পরিমাণ নিয়ে অনেকদিন ধরেই তদন্ত চালাচ্ছে আয়কর বিভাগ। এমনকি তাদের সম্পত্তির হদিশ দেওয়ার জন্য পুরষ্কার ঘোষণাও করা হয়েছে। এখনও তদন্ত শেষ হয়নি বলে জানিয়েছেন আয়কর কর্তারা।

কিছুদিন আগে কানপুরের ব্যবসায়ী পীযূষ জৈনের বাড়ি থেকে টানা ১২০ ঘণ্টা তল্লাশি চালিয়ে ১৯৭ কোটি নগদ টাকা উদ্ধার করেছিল আয়কর বিভাগ। পাওয়া গিয়েছিল প্রচুর সোনাদানাও। এবার মধ্যপ্রদেশের দামোহর ঘটনা অনেকটা তেমনই।

You might also like