Latest News

গোয়ার ভোট নিয়ে মমতার কড়া সমালোচনা শিবসেনার মুখপত্রে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গোয়ায় (Goa) কংগ্রেস নেতারা (Congress Leaders) তৃণমূলে (TMC) যোগ দেওয়ায় বাস্তবে সুবিধা হচ্ছে বিজেপিরই। শিবসেনার মুখপত্র ‘সামনা’-য় এমনই লিখেছেন দলের সাংসদ সঞ্জয় রাউত। সম্প্রতি গোয়ায় সংগঠন গড়তে তৎপর হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে শিবসেনার সম্পর্ক যথেষ্টই ভাল। তাই ‘সামনা’-য় তৃণমূলের সমালোচনা প্রকাশিত হওয়ায় অবাক হয়েছেন অনেকে। শিবসেনার মুখপত্রে তৃণমূলের পাশাপাশি আম আদমি পার্টিরও কড়া সমালোচনা করে বলা হয়েছে, তারা টাকা দিয়ে ভোট কিনতে চাইছে। গোয়ার প্রথম সারির রাজনীতিকদের তারা কৌশলে দলে টানতে চাইছে।

সঞ্জয় রাউত তাঁর সাপ্তাহিক কলামে লিখেছেন, তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গোয়ায় কংগ্রেসকে ধ্বংস করতে চান। ‘গ্র্যান্ড ওল্ড পার্টি’ যদি ধ্বংস হয়, তাতে সুবিধা হবে বিজেপির। কিন্তু মমতা এখন বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। তাঁর এমন কংগ্রেসবিরোধী অবস্থান নেওয়া উচিত নয়। সঞ্জয় রাউতের মতে, গোয়ায় তৃণমূল যে কৌশল নিয়ে চলছে, তাতে সুবিধা হবে বিজেপিরই।

রাউত লিখেছেন, “গোয়ায় কংগ্রেসের কোনও বড় নেতা নেই। সেখানে কংগ্রেস বিধায়কের সংখ্যা ১৭ থেকে কমে হয়েছে দুই। গোয়ার রাজনীতি নিয়ে সর্বভারতীয় নেতারা কেউ মাথা ঘামান না। তৃণমূল ও আপের মতো বহিরাগত দল সেখানে ভূমিপুত্রদের উন্নতির কথা বলছে।” শিবসেনা এমপি-র মতে, তৃণমূল এবং আপ, উভয়েই গোয়ার খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী মানুষের ভোট চায়। কিন্তু খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষ কংগ্রেসকে সমর্থন করেন। কয়েকজন কংগ্রেস নেতা বিদ্রোহ করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু পরে তাঁরা জানতে পারেন, বিজেপি তাঁদের ভোটে প্রার্থী করবে না। তাই তাঁরা এখন কংগ্রেসে ফিরে যাচ্ছেন।

সঞ্জয় রাউত প্রশ্ন তুলেছেন, তৃণমূল গোয়ায় ভোটে লড়ার জন্য টাকা পাবে কোথা থেকে। একইসঙ্গে বিজেপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, তারা ১০ বছর ধরে গোয়ায় ক্ষমতায় রয়েছে। কিন্তু তাদের গরিষ্ঠতা নেই। তারা অন্য দলের বিধায়ক কিনে ক্ষমতায় রয়েছে।

You might also like