Latest News

‘খালি গায়ে রাস্তায় বসেছিলে কেন, এটা তৃণমূলের কালচার?’ গৌতমকে ধমক মমতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তখন উত্তর হাওড়ার (Howrah) বিস্তীর্ণ এলাকা জলে ভাসছে। বৃষ্টি থেমে গেছে তবু জল আর নামে না। নাগরিক ক্ষোভও তখন পাহাড় প্রমাণ। অক্টোবরের গোড়ায় যখন হাওড়ার বামুনগাছি এলাকার নাকানিচোবানি অবস্থা তখন জল নামানোর ব্যবস্থা না করে স্বয়ং বিধায়কই জলমগ্ন রাস্তায় বসে পড়েছিলেন চেয়ার পেতে।

বাংলা ডেয়ারির পণ্য এমাস থেকেই, শুরুতেই ৫০০ আউটলেট

কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সব মনে থাকে। সেই কান্ড নিয়ে বৃহস্পতিবার হাওড়ার প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর তীব্র ধমক শুনতে হল উত্তর হাওড়ার তৃণমূল বিধায়ক গৌতম চৌধুরীকে।

এদিন সব বিধায়করাই একে একে উঠে তাঁদের এলাকার পরিস্থিতি বলছিলেন। দেখা যায় একসময় উঠে দাঁড়ান গৌতম। বলেন, “দিদি, আপনাকে উত্তর হাওড়ার নাগরিকদের পক্ষ থেকে প্রণাম জানাই!”

এই বলামাত্রই মমতার বোধহয় সেই কথা মনে পড়ে যায়। সঙ্গেসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “তুমি গৌতম চৌধুরী? তুমি রাস্তায় বসে পড়েছিলে কেন?” এরপর গৌতম শুধু বলেন, “দিদি ওখানে জল জমেছিল!” এরপর মমতা আরও ক্ষিপ্ত হন। বলেন, “জল জমেছিল তো কী হয়েছে? প্রকৃতি কি আমাদের হাতে? তুমি জানো ৮০ বছরে এরকম বৃষ্টি হয়নি? জল না নামিয়ে খালি গায়ে বসে রাস্তায় বসে পড়ল! এটা তৃণমূল কংগ্রেসের কালচার!”

গৌতম এমনিতে দাপুটে নেতা। তবে দিদি যখন এ কথা বলছেন তখন তাঁর আর মুখে রা কাড়ার সাহস হয়নি। চুপচাপ দিদির ধমক শুনতে হয় বাবুডাঙা থেকে পিলখানা পর্যন্ত বাঘে-গরুতে এক ঘাটে জল খাওয়ানো নেতাকে। মমতা এও বলেন, সংবাদমাধ্যমে বিধায়কের ওই ছবি দেখেই তিনি বার্তা পাঠিয়েছিলেন। সতর্ক করে দিয়ে গৌতমকে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, এমন যেন ভবিষ্যতে আর না হয়!

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like