Latest News

Howrah: রাজ্য মিটে সোনা ফলিয়েছে গ্রামের ছেলে কর্ণ! তার চোখজুড়ে এখন শুধুই অলিম্পিক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বয়স তখনও দশের গণ্ডি পেরোয়নি, তখন থেকেই খেলাধূলার প্রতি তার গভীর আগ্রহ ছিল। প্রাথমিক স্কুলে পড়ার সময় প্রথম বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিল সে। সেই প্রতিযোগিতায় পাওয়া সাফল্যই এগিয়ে নিয়ে গেছে তাকে। স্কুল ছাড়িয়ে, জেলা ছাড়িয়ে পৌঁছে গেছে রাজ্য স্তরে। পুরনো রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে হাওড়ার (howrah) উদয়নারায়ণপুরের আসন্ডা গ্রামের বছর সতেরোর কর্ণ বাগ।

সম্প্রতি, রাজ্য মিটে ৪০০ মিটারের হার্ডেলসে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের হয়ে অংশ নিয়ে চমক দিয়েছে কর্ণ। ৪০০ মিটারের হার্ডেলস শেষ করেছে মাত্র ৫৩.২ সেকেন্ডে। আগে সেই রেকর্ড ছিল ৫৫.৩ সেকেন্ডে। সেই রেকর্ডও ভেঙে দিল হাওড়া জেলার প্রত্যন্ত গ্রামের কর্ণ। পেয়েছে সোনার মেডেল। শুধু তাই নয়, ৪০০ মিটার দৌড় ও ৪০০ মিটার মিক্স ইভেন্টে প্রথম স্থান অধিকার করেছে কর্ণ।

রবি ঠাকুরের বইয়ের চেয়েও দামি মমতার ‘কবিতাবিতান’! স্ক্রিনশট দেখিয়ে তোপ শ্রীলেখার

বছর সতেরোর কর্ণকে প্রতিদিনই জীবন যুদ্ধে লড়াই করতে হয়। অভাবের সংসারে বেড়ে ওঠা কর্ণ কক্ষনই নিজের এই প্রতিভাকে ছেড়ে দেয়নি। নিয়মিত অভ্যাস চালিয়ে গেছে। কর্ণের বাবা বিকাশ বাগ পেশায় মাছ বিক্রেতা। সবসময়ই সংসারে লেগে থাকে আর্থিক অনটন। কিন্তু সব পিছনে ফেলে নিজের লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে কর্ণ।

পাশাপাশি পড়াশুনাও চালিয়ে যাচ্ছে সে। এবছরই কর্ণ আসন্ডা আদর্শ শিক্ষা সদন থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে। চোখে স্বপ্ন অলিম্পিক জেতার। প্রতিদিন সকালে উঠে ব্যাগ কাঁধে ছোটে তারকেশ্বরে। সেখানেই প্র্যাকটিস করে। ফিরে এসে স্কুল, পড়াশুনা, সংসারের টুকিটাকি কাজ। এভাবেই নিজের স্বপ্নকে প্রতিদিন একটু একটু করে ছোঁয়ার চেষ্টা করছে সে।

কেমন করে এই লড়াই চালাচ্ছে কর্ণ? তার কথায়, ছোটবেলা থেকেই খেলাধূলার প্রতি আকর্ষণ ছিল। তাই উপযুক্ত সরঞ্জাম না থাকা সত্ত্বেও প্র্যাকটিস চালিয়ে যাচ্ছি। জুন মাসে গুজরাতে ফেডারেশন কাপে ৪০০ মিটার হার্ডলসে অংশ নেওয়ার ইচ্ছা আছে। তবে ইচ্ছা থাকলেও যাতায়াতের খরচ নিয়ে চিন্তায় আছে। কর্ণ জানে, স্বপ্ন ছুঁতে এখনও অনেক পথ হাঁটতে হবে তাকে।

খারাপ কোলেস্টেরল কমাবে, কম ডোজে ওরাল পিল আনল জাইদাস

You might also like