Latest News

দিঘার তটে আর ছুটবে না ঘোড়া! নির্দেশ দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দিঘায় বেড়াতে এসে সমুদ্র পাড়ে ঘোড়া ছোটানোর মজাই আলাদা! কিন্তু তাতে উড়ছে বিপুল বালি, দূষণের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে শহর। শুধু তাই নয়, চারিদিকে ঘোড়ার মল মূত্রতে পা ফেলা দায়। সবদিক বিবেচনা করেই দিঘার সমুদ্র সৈকতে ঘোড়দৌড় বন্ধের নির্দেশ দিল দিঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদ।

দূষণ এবং বালিয়াড়ি ক্ষয় প্রতিরোধের লক্ষেই এমন কড়া সিদ্ধান্ত প্রশাসনের। কিন্তু এতে ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়বেন এতদিনের ঘোড়া ব্যবসায়ীরা। তাই তাঁরা এই সিদ্ধান্ত মানতে নারাজ। আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ঘোড়ার মালিকরা।

দিঘা পর্যটনের সঙ্গে ঘোড়দৌড়ের সম্পর্ক বহু পুরনো। দিঘার সৈকতে ঘোড়ার ব্যবসা করে দিনযাপন করে শতাধিক পরিবার। তবে এতদিন লকডাউন চলার পর ফের করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের সময় বিধিনিষেধে কার্যত থমকে গেছে সৈকতের জনজীবন। পর্যটকদেরও ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। এরপর যদি ঘোড়ায় ওঠাও বন্ধ হয়ে যায় তাহলে চলবে কী করে দিঘা?

বেশ বিপাকে পড়েছেন ঘোড়া কারবারিরা। আসলে ঘোড়ার দানা জোগানোর পরিস্থিতিই নেই অনেকের। তাই আস্তাবল ছেড়ে এখন ঘোড়াগুলো যেখানে সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তার বিষ্ঠায় বাড়ছে দূষণ। খুরের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সরকারি সম্পদ বালিয়াড়ি। দিন দিনে নোংরা হচ্ছে দিঘা শহর। এ কারণেই ঘোড়দৌড় বন্ধের বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের প্রশাসক মানস কুমার মণ্ডল।

তবে এমন নির্দেশ এই প্রথম না। একই কারণে আগে বারবার ঘোড়ার কারবারে লাগাম পরিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু বিগত দিনে সেই লাগাম ছেড়েই ঘোড়া ছুটেছে সৈকতে। আগেও আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে ঐতিহ্যের ঘোড়দৌড় টিকিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছিলেন কারবারিরা। এবারও সেই পথে নামার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন তাঁরা।

You might also like