Latest News

Hindmotor: ৮ বছর পর খুলতে চলেছে হিন্দমোটর! অ্যাম্বাস্যাডরের বদলে তৈরি হবে ব্যাটারিচালিত গাড়ি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ২০১৪ সালে সাসপেনশান অফ ওয়ার্কের নোটিশ ঝুলেছিল উত্তরপাড়ার হিন্দুস্তান মোটর্সের (Hindmotor) কারখানায়। গত আট বছরে কারখানার শ্রমিকদের অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে। বেতন বন্ধ হওয়ায় অনেকেই বিকল্প কাজ খুঁজে নিতে বাধ্য হয়েছেন। তবে এখনও সাড়ে তিনশো শ্রমিক রয়েছেন বিড়লাদের হিন্দমোটরে। এবার হয়তো সেই দুঃসময় কাটতে চলেছে। সূত্রের খবর, ইউরোপের এক গাড়ি প্রস্তুতকারী সংস্থার সঙ্গে মৌ চুক্তি হয়েছে হিন্দুস্তান মোটর্স কর্তৃপক্ষের। ফলে উত্তরপাড়ার কারখানায় অ্যাম্বাস্যাডর তৈরি না হলেও তৈরি হবে ইলেকট্রিক ও ব্যাটারি চালিত গাড়ি এবং বাইক। যদিও এই বিষয়ে বিড়লাদের পক্ষ থেকে নির্দিষ্ট করে কিছু জানানো হয়নি।

এদিকে ফের গাড়ি তৈরি হবে কারখানায়, এই খবর শুনে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে হিন্দমোটরের (Hindmotor) উত্তরপাড়া কারখানায় এখনও থেকে যাওয়া শ্রমিক পরিবারগুলি। অনেকেই কাজ না থাকায় চলে গেলেও বেশ কিছু শ্রমিক পরিবার নিয়ে এখনও ভাঙাচোরা শ্রমিক আবাসনে থাকেন। সেখানে পানীয় জল, বিদ্যুতের সমস্যা সত্ত্বেও থাকতে বাধ্য হচ্ছে অসহায় পরিবারগুলি। এতদিন তারা একটাই আশা নিয়ে ছিল, যদি কখন‌ও কারখানা খোলে। সেই আশা পুরণ হ‌ওয়ার সম্ভাবনা দেখা দেওয়ায় শ্রমিক সংগঠন থেকে শুরু করে শ্রমিক পরিবারের সদস্য, এমনকি এলাকাবাসীও খুশি। সকলের একটাই আশা, কারখানা খুললে আবার জমজমাট হয়ে উঠবে গোটা এলাকা।

তবে এর আগেও একাধিকবার কারখানা খোলার কথা শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত তা আর হয়নি। ফলে আশার মধ্যেই কোথাও একটা যেন আশঙ্কার মেঘ উঁকি দিচ্ছে মনের কোণে।

কারখানা বন্ধ হওয়ার পর গত ৮ বছরে ধীরে ধীরে হিন্দমটোরের একের পর এক জমি বিভিন্ন আবাসন সংস্থাকে বিক্রি করে দিয়েছে মালিকপক্ষ। প্রথমে বেঙ্গল শ্রীরামকে প্রায় সাড়ে তিনশ একর জমি বিক্রি করে দেওয়া হয়। পরে হিরানন্দানীকে আরও একশ একর জমি বিক্রি করা হয়। বর্তমানে ২৭৫ একর জমি রয়েছে বিড়লাদের হাতে। তার মধ্যে ৯৬ একর জমির উপর আছে কারখানা। সেই কারখানাতেই ব্যাটারি চালিত গাড়ি ও বাইক তৈরি হ‌ওয়ার কথা। তবে ইউরোপের কোন কোম্পানির সঙ্গে কী শর্তে বিড়লাদের মৌ সাক্ষর হয়েছে তা স্পষ্ট নয়। পুরনো শ্রমিকরা আদৌ কাজ পাবে কিনা সেটা নিয়েও সংশয় আছে।

এই খবরে খুশি হলেও অতীত অভিজ্ঞতা থেকে যেন কিছুটা সতর্ক হিন্দমোটরের সিটু নেতা মণীন্দ্র চক্রবর্তী। তিনি বলেন, “এর আগেও হাওয়া উঠেছিল হিন্দমোটর খুলবে। কিন্তু কিছু হয়নি। কোম্পানির শেয়ার চাঙ্গা রাখতে এই ধরনের খবর রটানো হয়। তবে সত্যি যদি কারখানা খুলতে চায় তাহলে সাহায্য করা হবে”।

স্ত্রীর সঙ্গে অশান্তি, নিজের একরত্তি শিশুকে পুকুরে ডুবিয়ে ‘খুন’ করল বাবা!

You might also like