Latest News

হিরো আলমের মুচলেকা রবীন্দ্রসঙ্গীত গেয়ে, শাস্তির পক্ষে সওয়াল তসলিমার

দ্য ওয়াল ব্যুরো:‌ ‘‌পশ্চিমবঙ্গের থেকে রবীন্দ্রপ্রেমে এগিয়ে বাংলাদেশ’‌, বৃহস্পতিবার ফেসবুক পোস্টে এই দাবি করলেন তসলিমা নাসরিন। তাঁর বক্তব্য, রবীন্দ্রসঙ্গীতকে (Rabindranath Tagore) বিকৃতির হাত থেকে রক্ষা করে না পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু বাংলাদেশ করে। যেকারণে ‘‌আর রবীন্দ্রসঙ্গীত গাইব না’‌, এই মর্মে মুচলেকা দিতে হয়েছে হিরো আলমকে।

সম্প্রতি হিরো আলমের গাওয়া রবীন্দ্রসঙ্গীত (Rabindranath Tagore) নিয়ে বিতর্ক শুরু হয় বাংলাদেশে। অনেকেই অভিযোগ করেন, তিনি রবীন্দ্রসঙ্গীত বিকৃত করেছেন। সে দেশের বহু মানুষ সামাজিক মাধ্যমে আপত্তি জানান। তাঁর ওই গান ও ভিডিওর বিরুদ্ধে ‘‌বাংলাদেশ অপসংস্কৃতি প্রতিরোধ সংস্থা’‌ একটি মিছিল করে। সেখানে হিরো আলমের গ্রেপ্তারির দাবি ওঠে। হিরো আলমের গানে বিরক্ত মানুষের একাংশের অভিযোগ, তিনি দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন।

এরপরই ঢাকা পুলিশ ডেকে পাঠায় হিরো আলমকে। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ জানান, হিরো আলমের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইম বিভাগের কাছে অনেক অভিযোগ এসেছে। তাঁর কথায়, ‘‌আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির অহংকার নজরুল ও রবীন্দ্রসংগীত (Rabindranath Tagore)। আমরা গান শুনি, নজরুল-রবীন্দ্র শুনি। এই সব গানের সব কিছু তিনি পরিবর্তন করেছেন। এসব কেন করেছেন জানতে চাইলে তিনি জানিয়েছেন, জীবনেও আর এমন গান করবেন না। তিনি মুচলেকা দিয়েছেন।’

এই বিষয়টিতেই বাংলাকে কটাক্ষ করেছেন লেখিকা তসলিমা নাসরিন। তিনি পোস্টে লিখেছেন, ‘‌যেমন ইচ্ছে গান গাওয়ার অধিকার পশ্চিমবঙ্গেই বেশি। এমনকি রবীন্দ্রসঙ্গীতও (Rabindranath Tagore) রুচিহীন ভাবে গাওয়ার অধিকার মানুষের আছে। কিন্তু বাংলাদেশে অন্য যে কোনও গান বিকৃত করার অধিকার থাকলেও রবীন্দ্রসঙ্গীত গাওয়ার অধিকার নেই। যেকারণে রোদ্দুর রায়কে মুচলেকা দিতে হয়নি।’‌

হিরো আলম মাঝেমধ্যেই হিট বা ভাইরাল গান বিভিন্নভাবে গেয়ে থাকেন। যেমন কাঁচা বাদাম, মানিকে মাগে হিথে, শ্রী বল্লি ইত্যাদি। সম্প্রতি তিনি রবি ঠাকুরের ‘‌আমার পরাণ যাহা চায়’‌, গানটি গিটার হাতে নিয়ে গান। তারপরই শুরু হয় বিতর্ক। ঢাকা পুলিশ জানিয়েছে, হিরো আলম মুচলেকা দিয়েছেন তিনি আর রবীন্দ্রসঙ্গীত (Rabindranath Tagore) বিকৃত করবেন না।

একসঙ্গে কলকাতা ছাড়ছেন দেব-মিঠুন, কোথায় যাচ্ছে টিম ‘প্রজাপতি’

You might also like