Latest News

হরিদেবপুরে যুবক খুনে গ্রেফতার ৩, পুলিশের জালে বান্ধবী, তাঁর মা ও ভাই

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হরিদেবপুরে যুবক খুনের রহস্য উন্মোচন হচ্ছে। খুনের অভিযোগে ওই যুবকের বান্ধবী, বান্ধবীর মা ও ভাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে।

রাতে বান্ধবীর বাড়িতে গিয়ে আর ফেরেননি হরিদেবপুরের (Haridevpur Murder) বাসিন্দা অয়ন মণ্ডল। শুক্রবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাট থেকে উদ্ধার হয় তাঁর দেহ। এরপর অয়নের বান্ধবী ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়।

জানা গেছে, এদিন দক্ষিণ ২৪ পরগনা মগরাহাট থানার অন্তর্গত মাগুরপুকুর পুলিশ ক্যাম্পের পাশ থেকে উদ্ধার হয় অয়নের (২১) দেহ। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, খুন করা হয়েছে তাঁকে। কিন্তু এই ঘটনার পেছনে কে বা কারা জড়িত তা এখনও নিশ্চিতভাবে বলতে পারছেন না কেউই। অয়নের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে অয়নের বান্ধবী ও তাঁর বাবাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে হরিদেবপুর থানার পুলিশ।

অয়নের বন্ধুদের সূত্রে খবর, দশমীর দিন তাঁর বান্ধবী একা ছিলেন। তাই তাঁর সঙ্গে দেখা করতেই যান অয়ন। কিন্তু হঠাৎই ওই মেয়েটির মা-বাবা এসে পড়ায় ছাদে চলে যান তিনি। সেখান থেকেই রাত ৩টে নাগাদ বন্ধুদের ফোনও করেন। বন্ধুদের দাবি, সেই ফোনে অয়ন তাঁদের জানান যে, ওই মেয়েটির মা নাকি তাঁকে মারধর করেন।

তারপর থেকে অয়নকে আর ফোনে পাওয়া যায়নি। ৪৮ ঘণ্টা কেটে যাওয়ার পরও বাড়ি ফেরেননি অয়ন। এদিন পুলিশ তাঁর দেহ উদ্ধার করে। শেষবার অয়নের ফোনের লোকেশন পাওয়া গিয়েছিল হরিদেবপুরের নেপালগঞ্জ এলাকায়। কিন্তু ছেলেকে যে মৃত অবস্থায় এতদূরে পাওয়া যাবে তা স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি অয়নের পরিবার। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। কীভাবে অতদূরে অয়নের দেহ মিলল তাও তদন্তকারী অফিসারদের ভাবাচ্ছে। এদিকে পুলিশের নিস্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন পরিবারের লোকেরা।

You might also like