Latest News

মোবাইল ছিনতাই করে পালিয়েছিল চোর, স্মার্ট ওয়াচের সাহায্যে সেই ফোন ফেরত পেলেন তরুণী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একেই বলে প্রযুক্তির মহিমা! হাত থেকে স্মার্টফোন ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছিল চোর (snatcher)। পিছন পিছন ছুটেও তাকে ধরতে পারেননি তরুণী। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সহায় হল হারিয়ে যাওয়া মোবাইলের সঙ্গে সংযুক্ত স্মার্ট ওয়াচ (smartwatch)। সেই বুদ্ধিমান ঘড়ির সাহায্যেই লোকেশন ট্র্যাক করে খোয়া যাওয়া স্মার্টফোন ফিরে পেলেন (traces phone) তরুণী!

ঘটনাটি ঘটেছিল গুরুগ্রামের (Gurugram) সেক্টর ২৩ অঞ্চলে গত ২৮ অগস্ট। তবে এই ঘটনায় মোবাইল চোরের বিরুদ্ধে সম্প্রতি এফআইআর দায়ের করেছেন তরুণী। তারপরেই সামনে এসেছে পুরো ঘটনা। ২৮ বছর বয়সি পল্লবী কৌশিক গুরু গ্রামের পালাম বিহারের বাসিন্দা। গত ২৮ অগস্ট সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ জিনিসপত্র কেনার জন্য একটি দোকানে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই ক্যাশ কাউন্টারে দাঁড়িয়ে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইনে ইউপিআই-এর মাধ্যমে বিল পেমেন্ট করছিলেন পল্লবী। তখন আচমকাই পিছন থেকে এক ব্যক্তি তাঁর হাত থেকে মোবাইলটি ছিনিয়ে নিয়ে দৌড় মারে। ছিনতাইবাজের পিছনে ছুটতে শুরু করেন পল্লবী। কিন্তু বেশ কিছুটা দৌড়ানোর পরেও চোরের নাগাল পাননি তিনি।

ফোনের মধ্যে সমস্ত জরুরী তথ্য-সহ পরিচিতদের যোগাযোগের নম্বর থাকায় সিটি হারিয়ে অত্যন্ত হতাশ হয়ে পড়েছিলেন পল্লবী। ফলে হাল না ছেড়ে সেক্টর-২৩ এর অলিগলিতে ঘুরে ঘুরে হারানো মোবাইলের সঙ্গে সংযুক্ত স্মার্ট ওয়াচের সাহায্যে ফোনটির লোকেশন ট্র্যাক করার চেষ্টা করতে থাকেন তিনি। প্রায় ঘণ্টা তিনেক চেষ্টার পর অবশেষে সাফল্য আসে। রাত ৯.১৫ নাগাদ ওই এলাকারই একটি গলির ভিতর একটি বাইকে বসে চোরকে তাঁর মোবাইলটি হাতে নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করতে দেখতে পান পল্লবী।

ছিনতাইবাজকে নিজের উপস্থিতি বুঝতে না দিয়ে চুপিচুপি পিছন থেকে গিয়ে তাকে এক ঘুষি মেরে মাটিতে ফেলে দেন পল্লবী। এতেই তার হাত থেকে পল্লবীর মোবাইলটি পড়ে যায়। এরপর সেটি না তুলেই চম্পট দেয় ওই ব্যক্তি। মোবাইল ফিরে পেয়েই পল্লবী খেয়াল করেন, তাঁর ইউপিআই পিন ব্যবহার করে ইতিমধ্যেই ওই ব্যক্তি অন্য বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট মিলিয়ে মোট ৫০ হাজার ৮৬৫ টাকা ট্রান্সফার করে নিয়েছে। এরপরেই পালাম বিহার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা।

পল্লবীর অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। এরপর গত সোমবার রাতে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় চুরি, ছিনতাই এবং জালিয়াতির অভিযোগে এফআইআর দায়ের করে পুলিশ। তবে এফআইআর দায়ের করতে এত দেরি হল কেন, সে ব্যাপারে কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি পুলিশ। তবে তদন্তকারীদের তরফে জানানো হয়েছে, তদন্তে জানা গেছে, পল্লবীর মোবাইলটি ব্যবহার করে মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি সংস্থার বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়েছে অভিযুক্ত। অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

দিনের আলোয় মহিলা খুন কর্নাটকে, ধর্মান্তকরণ না খুনের বদলা?

You might also like