Latest News

বিশেষভাবে সক্ষম নাবালিকা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ, গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী শিক্ষক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১৪ বছর বয়সি একজন বিশেষভাবে সক্ষম (Differently Able) নাবালিকাকে(Minor) ধর্ষণ (Rape) করার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল শিক্ষকের বিরুদ্ধে। তারপর থেকেই পলাতক 9Absconding) ছিলেন তিনি। এবার ঘরের সিলিং থেকে তাঁর ঝুলন্ত মৃতদেহ (Dead body) উদ্ধার করা হল।

ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতের (Gujarat) ছোটাউদয়পুরে। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনাটি আত্মহত্যা (Suicide) বলে অনুমান পুলিশের। জানা গেছে, গত সপ্তাহে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে তাঁর বিশেষভাবে সক্ষম নাবালিকা ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেছিলেন ছাত্রীর মা।

ওই মহিলার অভিযোগ গত ২৬ জুলাই তাঁর মেয়েকে ধর্ষণ করেছেন ওই শিক্ষক। নির্যাতিতা ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক তাঁর বাড়িতে এসে বলেন, তিনি কয়েকজন শ্রমিকের জন্য অপেক্ষা করছেন। তাদের এসে পৌঁছানো পর্যন্ত ওই বাড়িতেই অপেক্ষা করবেন বলে জানান তিনি। শিক্ষককে বিশ্বাস করে নাবালিকাকে বাড়িতে ওই শিক্ষকের সঙ্গে একা রেখে কাজে চলে যান বাড়ির লোকজন। সেই সুযোগেই ওই শিক্ষক তাঁর মেয়েকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ করেন মহিলা।

এরপর পকসো আইনে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ। নির্যাতিত কিশোরীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য একটি সরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিলেন ওই শিক্ষক। বুধবার রাতে গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান পুলিশকে ফোন করে জানান, বাড়ি ফিরে এসে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ওই শিক্ষক।

ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ধর্ষণের ২৮ বছর পর ধরা পড়ল দুই অভিযুক্ত, ডিএনএ মিলল নির্যাতিতার সন্তানের সঙ্গে

You might also like