Latest News

কলেজ যেন ছোটদের স্কুল, ছুটি পর্যন্ত গেটের বাইরে সন্তানের অপেক্ষায় বাবা-মায়েরা

আকাশ ঘোষ

স্কুলের বাইরে বাবা-মায়েরা (Guardians) অপেক্ষা করছেন, এমন ছবি আমাদের চোখ সওয়া। করোনাকালে বহু কলেজের গেটেও এখন সেই চিত্র। কোনও ছেলে-মেয়ে ক্লাস করতে এসেছে। কেউ এসেছে কোনও ফর্ম জমা করতে। কিন্তু সঙ্গে এসেছেন বাবা, মা বা পরিবারের বড় কেউ।

বৃহস্পতিবারও শহরের অনেক কলেজের বাইরে দেখা গেল বাবা-মায়েরা ক্লাস চলাকালে অপেক্ষা করছেন। তাঁদের মধ্যে বেশিরভাগের সন্তানই এবছর প্রথম স্কুল থেকে কলেজে উঠেছে। ২০ মাস আগে যখন করোনার কারণে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল সবকিছু, তখন স্কুলেই পড়ত তারা। এতদিনে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে স্কুল থেকে কলেজে উঠেছে, তবুও এখনও ‘একা’ ছাড়তে রাজি নন, অনেক অভিভাবকই। দু’বছর আগেও কলেজের বাইরে অভিভাবকদের এহেন অপেক্ষার চিত্র ছিল না। করোনার কারণে এতেও বদল ঘটেছে। কলেজ উঠলেও ছেলেমেয়েকে করোনাকালে এখনই একা ছাড়তে রাজি নন তারা। পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত নেবেন, এমনও জানালেন অনেকে।মেয়ে প্রথম কলেজে এসেছে তাই তাকে সঙ্গে করে নিয়ে এসেছেন বনগাঁর ভারতী সাউ। সুরেন্দ্রনাথ কলেজের সামনে অপেক্ষা করছিলেন তিনি। জানালেন, মেয়ে প্রথম কলেজে আসছে, এতদিন বাড়িতে ছিল। আগে তো স্কুলে নিয়ে যেতাম আসতাম, এখন তাই প্রথম প্রথম তাই করব, জানালেন বছর চল্লিশের ভারতীদেবী। তাঁর কথায়, ভয়ও থাকছে কতটা করোনা বিধি পথে কতটা মানবে তা নিয়ে।

যাদবপুর, প্রেসিডেন্সি যেন ত্রিপুরা, গোয়া! ক্যাম্পাস দখলে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তৃণমূলের ছাত্ররা

তাঁর কথায়, ‘কলেজ শুরু হওয়াটা ভালোই হয়েছে। করোনার নিয়মকানুন যতটা বোঝানোর বোঝাই ছেলে মেয়েদের। কিন্তু ওরা কতটা মানছে সেটা দেখার তো উপায় নেই।’একই বক্তব্য হাবরার বাসিন্দা মৃদুল দাসেরও। মেয়ে কলেজে উঠেছে তবু তিনি সঙ্গে এনেছেন, শেষ হলে আবার সঙ্গে নিয়েই বাড়ি ফিরবেন। বঙ্গবাসী কলেজের প্রথম বর্ষে ভর্তি করেছেন মেয়েকে। তাঁর কথায়, ‘সবে শুরু হয়েছে কলেজ। তাই সঙ্গে করে নিয়ে আসি। একটু অভ্যস্থ হলে তখন দেখা যাবে।’ করোনা বিধি মানা নিয়ে চিন্তিত তিনি। যোগ করলেন, ‘পরে কতটা করোনাবিধি মানা হবে জানি না। এত ভিড়ের মধ্যে দূরত্ব মানা সম্ভব কী করে?’ছেলে-মেয়ে স্কুল থেকে কলেজে উঠলেও চিন্তা দূর হচ্ছে না অভিভাবকদের। বিশেষত করোনার জন্য সঙ্গে নিয়ে আসাটাই শ্রেয় মনে করছেন তাঁরা। মত, ‘সঙ্গে থাকলে কিছুটা বিধি তো মানবে।’ এই ভেবেই পড়ুয়াদের সঙ্গে কলেজমুখী অভিভাবকরা।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like