Latest News

কর্নাটকে ভোটের ঢাকে কাঠি পড়তেই ঘরে ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে শাড়ি, মিষ্টি, প্রেসারকুকারও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এবার মকর সংক্রান্তিতে কর্নাটকের (Karnataka) মালেশ্বরম বিধানসভার মহিলা ভোটারদের অনেকেরই বিচিত্র অভিজ্ঞতা হয়েছে। তাদের মোবাইলে মকর সংক্রান্তির শুভেচ্ছা বার্তার সঙ্গেই আসে একটি ওটিপি। বলা হয়, এলাকার ওয়ার্ড অফিসে গিয়ে ওটিপি দেখিয়ে উপহারের শাড়ি সংগ্রহ করতে হবে। এটা স্থানীয় বিধায়কের উপহার (Gifts)।

অনেকেই ভেবেছিলেন সাধারণ মানের কোনও শাড়ি হবে হয়তো। হাতে নিয়ে দেখেন দেড় হাজার টাকা দাম প্রতিটি শাড়ির।

সিভি রমন নগর, ইন্দিরানগরের গরিব পরিবারগুলিকে স্থানীয় বিধায়ক পাঁচ লিটারের একটি প্রেসার কুকার দিয়েছেন দিন কয়েক আগে। মকর সংক্রান্তিতে বাড়ি বাড়ি বিলি করা হয় মিষ্টির প্যাকেট। মিষ্টির প্যাকেট মিলেছিল দেওয়ালির সময়ও।

শিবাজি নগর বিধানসভার বাসিন্দারা মকর সংক্রান্তিতে পেয়েছেন চাল-ডাল ভর্তি ব্যাগ। ইজিপুরার বিধায়ক তাঁর নির্বাচনী এলাকার বেকারদের জন্য চাকরি মেলার আয়োজন করেন। সেখানে নিয়োগ কর্তাদের মুখোমুখি বসিয়ে দেওয়া হয় করোনার সময় কাজ হারানো লোকজনকে।

এই সব সুবিধা প্রদানের তালিকায় আছে প্রথমসারির সব দলের বিধায়কেরাই। দলগতভাবে আগেই ময়দানে নেমেছে প্রধান দুই প্রতিপক্ষ বিজেপি ও কংগ্রেস। বিজেপি গৃহিনী শক্তি স্কিম ঘোষণা করে বলেছে, প্রত্যেক গৃহবধূকে তারা মাসে দু’ হাজার টাকা করে দেবে। অন্যদিকে, কংগ্রেসও গৃহলক্ষ্মী স্কিম ঘোষণা করে মহিলাদের মাসে দু হাজার টাকা করেই দেবে বলেছে। গত সপ্তাহে বেঙ্গালুরুতে গিয়ে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী।

দক্ষিণের এই রাজ্যে ভোটের (election) নির্ঘণ্ট এখনও প্রকাশ করেনি নির্বাচন কমিশন। হিসাব মতো এপ্রিল-মে মাস নাগাদ হওয়ার কথা বিধানসভার নির্বাচন। দক্ষিণ ভারতে এই একটি মাত্র রাজ্যেই বিজেপি এখনও পর্যন্ত ক্ষমতায় আসতে পেরেছে। তারা সেখানে ক্ষমতা ধরে রাখতে মরিয়া। আগের ভোটে বিজেপিকে হটিয়ে সরকার গঠন করেছিল কংগ্রেস এবং জনতা দল সেকুলার। কংগ্রেসকে ভাঙিয়ে ক্ষমতায় ফেরে বিজেপি। এবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

নিজের যৌনাঙ্গ কাটলেন চার বাচ্চার বাবা, স্ত্রী কেন বাপের বাড়িতে পড়ে থাকেন, তাই রাগ

You might also like