Latest News

SSC CBI: কুণাল মন্ত্রিসভার কেউ না, পার্থদা দায়ী হলে গোটা মন্ত্রিসভা দায়ী, স্কুল সার্ভিস বিতর্কে ববি

রফিকুল জামাদার

স্কুল সার্ভিসে ( SSC) নিয়োগ কেলেঙ্কারি নিয়ে শুক্রবার কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh) যে ভাবে প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের (Partha Chatterjee) উপর দায় চাপিয়েছিলেন, তাতে আপত্তি করলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)। শনিবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ববি বলেছেন, কুণাল মন্ত্রিসভার কেউ নয়। মন্ত্রিসভায় সবার সমষ্টিগত দায় রয়েছে। পার্থ দা মন্ত্রিসভায় আমার সহকর্মী। এ ব্যাপারে তাঁর যদি দায় থাকে, তা হলে ততটা আমিও দায়ী।
পর্যবেক্ষকদের মতে, ফিরহাদ হাকিম পষ্টাপষ্টি বোঝাতে চেয়েছেন, মন্ত্রিসভা সমষ্টিগত জ্ঞান বা বুদ্ধিতে (Collective Wisdom) চলে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় দায়ী হলে গোটা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্ত্রিসভা দায়ী।
স্কুল সার্ভিস (SSC) নিয়োগ কেলেঙ্কারি নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের (High Court) নির্দেশে জোড়া তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই (CBI)। এ ব্যাপারে জোড়া এফআইআর দায়ের হয়েছে। গত ৭২ ঘণ্টায় স্কুল সার্ভিসের উপদেষ্টা কমিটির প্রাক্তন চেয়ারম্যান শান্তিপ্রসাদ সিনহাকে (Shanti Prasad Sinha) দফায় দফায় জেরা করেছেন গোয়েন্দারা। এ ব্যাপারে শুক্রবার বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেন, স্কুল সার্ভিসে যে কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠছে তা বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর মেয়াদে হয়নি। এ নিয়ে কিছু জানার থাকলে তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসা করুন। তিনিই বুঝিয়ে বলতে পারবেন।
শুক্রবার কুণাল এ কথা বলার পরই রাজ্য রাজনীতিতে গুঞ্জন তৈরি হয়েছিল। তা হল, কুণাল কি নিজে থেকে এ কথা বলছেন। নাকি তাঁকে বলতে বলা হয়েছে!এবং এই সন্দেহও তৈরি হয় যে ফের কি প্রবীণ বনাম নবীনের সংঘাত বাঁধতে চলেছে তৃণমূলে।
সম্প্রতি পুরভোটে প্রার্থী বাছাই নিয়েও দেখা যায়, সুব্রত বক্সী-পার্থ চট্টোপাধ্যায়-ববি হাকিমরা এককাট্টা হয়েছেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁদের মতান্তর প্রকট হয়েছে। শনিবারও তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে দেখা গেল, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়ালেন ববি হাকিম। এবং তিনি ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দিতে চাইলেন, কোনও একজনকে এ ভাবে বলির পাঁঠা করা যাবে না।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কলকাতার মহানাগরিক বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও মন্ত্রী-নেতা অন্যায় করেননি। এখানে অন্যায় হয় না। প্রক্রিয়াগত ভুল হয়েছে কিনা সেটা তদন্ত সাপেক্ষ। মন্ত্রিসভায় পার্থদার মতো আমি মন্ত্রী। যদি কোথাও ত্রুটি হয়ে থাকে, তা হলে পার্থদার যতটা দায়, ততটা দায় আমারও রয়েছে। এটা আমাদের কালেকটিভ পরিবার। এখানে কারও উপর কেউ দায় ঠেলতে পারে না”।
এখানেই থামেননি ববি। তিনি বলেন, “এত বড় একটা সরকার চলছে। সেখানে কোথায় কোন প্রক্রিয়াগত ত্রুটি হচ্ছে, তা কি সবার পক্ষে জানা সম্ভব। আমি কলকাতার মেয়র। এখানে কোথায় অ্যাসেসমেন্ট নিয়ে কে ঘুষ খাচ্ছে, কোথায় ট্রেড লাইসেন্সের জন্য কে টাকা নিয়ে নিচ্ছে। তা কি আমার পক্ষে জানা সম্ভব? সুতরাং পার্থদাকে দায়ী করা ঠিক হচ্ছে না। প্রক্রিয়াগত ভুল থাকলে হয় বিভাগীয় তদন্ত হবে বা যা তদন্ত হচ্ছে তা হবে”।

প্রধান শিক্ষকের বদলি মানতে নারাজ, খাওয়া বন্ধ করে কেঁদে ভাসাচ্ছে পড়ুয়ারা

You might also like