Latest News

জল, শৌচালয়, আলো-পাখা কিছুই নেই জলপাইগুড়ির স্কুলে! তালা ঝোলালেন ক্ষুব্ধ অভিভাবক, হল না পরীক্ষা

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি: স্কুল তালাবন্ধ থাকায় বাতিল হয়ে গেল প্রথম দিনের বার্ষিক পরীক্ষা। পরীক্ষা দিতে এসেও ফিরে গেল ছাত্রছাত্রীরা (Examination Cancel)। জলপাইগুড়ি (Jalpaiguri) জেলার ময়নাগুড়ি ব্লকের মধ্য শালবাড়ি স্কুলের ঘটনা।

এই প্রাথমিক স্কুলের পরিকাঠামো নিয়ে অনেকদিন ধরেই নানান অভিযোগ আছে। সেই নিয়ে ক্ষোভ থেকেই গত সোমবার অমল রায় নামে এক গ্রামবাসী স্কুলের গেটে তালা ঝুলিয়ে দেন। তাই বৃহস্পতিবার বার্ষিক পরীক্ষা দিতে পারল না প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত ৩৭ পরীক্ষার্থী (Students)। এদিন বাংলা পরীক্ষা ছিল। শ্রেণিকক্ষ তালাবন্ধ থাকায় খোলা আকাশের নিচে বসল প্রি-প্রাইমারির পঠনপাঠন।

স্কুলের গেটে তালা ঝোলানোয় অভিযুক্ত অমল রায়ের পাল্টা অভিযোগ, “স্কুলে পানীয় জলের ব্যবস্থা নেই। কল থাকলেও তা থেকে জল পড়ে না। শৌচালয় তিন বছর আগে তৈরি হলেও জলের ব্যবস্থা না থাকায় ব্যবহার করা যাচ্ছে না। স্কুলের ফ্যান-লাইট, বাসনপত্র উধাও হয়ে গিয়েছে। ঠিক করে মিড-ডে মিল দেওয়া হয় না। দুজন শিক্ষিকা ও একজন শিক্ষক থাকলেও তাঁরা নিয়মিত আসেন না।” অমল রায়ের দুই শিশু সন্তান‌ও এই স্কুলে পড়েন। তিনি জানিয়েছেন ক্ষোভ থেকেই স্কুলের গেটে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন।

এদিকে ওই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকা সুজাতা সরকার যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, “আমার বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ আনা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। স্কুলের পরিকাঠামো সংক্রান্ত নানাবিধ সমস্যার কথা আমরা দীর্ঘদিন ধরে পঞ্চায়েত অফিস এবং বিডিওকে জানিয়েছি। পুজোর পর কাজ শুরু হ‌ওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখনও কাজ আরম্ভ হয়নি। এক্ষেত্রে আমাদের কিছু করার নেই।”

এই ঘটনায় ময়নাগুড়ি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি শিবম রায় বসুনিয়া জানান, পরিকাঠামোগত সমস্যায় স্কুলে তালা ঝোলানোর কথা তিনি জানতেন না। দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

পরীক্ষা চলছে তাতে কী! কেতুগ্রামের স্কুলেই হল দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প

You might also like