Latest News

রেনেডির কোচিংয়ে প্রথমার্ধে দুরন্ত ইস্টবেঙ্গল, হাউকিপের গোলে এগিয়ে লাল হলুদ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একজন কোচই বদলে দিতে পারে পুরো দলকে। তাঁর স্পর্শে প্রাণ ফিরতে পারে দলটির। এটিকে মোহনবাগানে ফিরেছে জুয়ান ফার্নান্দোর হাত ধরে, হাবাস বিদায়ে সেই আক্ষেপ আর নেই।

ইস্টবেঙ্গলেও একই চিত্র, কারণ ম্যানুয়েল দিয়াজের কোচিংয়ে হাসফাঁস করছিল দলটি। কিন্তু অন্তর্বর্তীকালীন কোচ রেনেডি সিংয়ের কোচিংয়ে পুরো বদলে গিয়েছে লাল হলুদ দল। মাঝমাঠে অজস্র নিখুঁত পাস খেলছে, এমনকি আক্রমণে অনেক বৈচিত্র্য রয়েছে দলের। তারই পরিপ্রেক্ষিতে ইস্টবেঙ্গল ১-০ গোলে এগিয়ে বেঙ্গালুরু এফসি-র বিপক্ষে। দ্বিতীয়ার্ধে খেলা বাকি রয়েছে।

ফুটবলে গুরুত্বপূর্ণ দিক হল সেট পিস বা ডেড বল সিচুয়েশন থেকে কার্যসিদ্ধি। সেই কাজটাই করেছে দলের ফুটবলাররা। ইস্টবেঙ্গলের গোলটিও এসেছে সেই পথ ধরেই। খেলার ২৯ মিনিটে আঙ্গুসানার নিখুঁত ফ্রি-কিক থেকে লো হেডারে প্রাক্তন দল বেঙ্গালুরুর জালে বল জড়িয়ে দিলেন হাওকিপ। দারুণ গোল হাউকিপের।

গত ম্যাচের পর চাকরি গিয়েছে ম্যানুয়েল দিয়াজের। আটে থাকা ব্যাঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে অবশেষে নিজেদের মরশুমের প্রথম জয় তুলে নেওয়ার অপেক্ষায় ইস্টবেঙ্গল। তারা খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে। নয় নম্বর ম্যাচে তাদের কাছে পরীক্ষা, কারণ গত ম্যাচগুলিতেও গোল দিয়ে ধরে রাখতে পারেনি দল, এদিন সেটি হয় কিনা সেটাই দেখার বিষয়।

বেঙ্গালুরু দলে একটি পরিবর্তন। বিরতির আগে মাঠে নামেননি সুনীল ছেত্রী, তাঁকে কোচ দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবহার করবেন। অজিথের বদলে প্রথম এগারোয় সুযোগ পেলেন উদান্ত সিং। ইস্টবেঙ্গলের প্রথম এগারোয় মোট চারটি বদল। রাজু গায়কোয়াড়ের বদলে আদিল খান এসে দলের চেহারা বদলে দিয়েছেন। প্রথম এগারোয় জায়গা পেলেন নাওরেম মহেশ সিং, থঙখোসিম সেম্বয় হাওকিপ, আঙ্গুসানা ওয়াহেঙবামও।

একটা সময় দেখা গিয়েছ দলের সতীর্থদের জন্য জলপানের বিরতিতে জল নিয়ে মাঠে প্রবেশ করছেন অধিনায়ক সুনীল। তিনি যে একজন সম্পূর্ণমানের টিমম্যান, সেটি আবারও বোঝালেন। ইগো নিয়ে পড়ে না থেকে সতীর্থদের পাশে থেকেছেন সুনীল।

 

 

You might also like