Latest News

ফুটবলারদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়লেন ইস্টবেঙ্গলের সিইও, চটে আগুন বাঙুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ইস্টবেঙ্গলে সমস্যা মেটার নয়। বরং দিনদিন বাড়ছে। মাঠে দলের ফল ভাল নয়, সেটি সংক্রমিত হচ্ছে ড্রেসিংরুমেও।

টানা ১১টি ম্যাচে জয় নেই, হিসেবটা ধরলে ১৫টি ম্যাচ। কারণ তারও চারটি ম্যাচ আগে থাকতে জয়ের দেখা নেই দলের। সমর্থকদের হতাশা শেষ বিন্দুতে এসে গিয়েছে।

তাও স্প্যানিশ কোচ দিয়াজ চলে যাওয়ার পরে খেলার কৌশলে বদল এসেছে। দলের ফুটবলারদের খেলায় প্রাণ দেখা গিয়েছে। তবুও জয় না আসায় সবাই হতাশ। গত ম্যাচে জামশেদপুরের বিপক্ষে শেষ কয়েক মিনিট আগে গোল হজম করে হার। সেটি মানতে পারছেন না দলের বহু ফুটবলারই।

শুধু তাই নয়, অন্তবর্তীকালীন কোচ রেনেডি সিং ড্রেসিংরুমে ফিরে কান্নাকাটি করেছেন। তাঁকে সান্ত্বনা দিয়েছেন দলের ফুটবলাররাই। রেনেডি চেয়েছিলেন ড্র করে অন্তত এক পয়েন্ট আসুক, তাতে নতুন কোচ রিভেরার কাজ সহজ হবে। কিন্তু সেটি হয়নি ঈশান পান্ডিতার গোলের জন্য।

তার মধ্যে আবার লাল হলুদের সিইও (চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার) শিবাজী সমাদ্দারের ওপর ক্ষুব্ধ দলের ফুটবলাররা। তিনি সেদিন ফেডারেশনের আপিল কমিটির মিটিংয়ে ছিলেন না। থাকলে বিদেশী তারকা পেরোসেভিচের শাস্তি মুকুবের বিষয়ে বলতে পারতেন, তাতে কাজও হতো। কিন্তু ফেডারেশন কর্তারা ভার্চুয়াল মিটিংয়ে ৪৫ মিনিট অপেক্ষা করে চলে যান। শিবাজী বাবুকে ফোন করেও সদুত্তর মেলেনি।

এই ঘটনায় ইস্টবেঙ্গল ফুটবলারদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ থেকে এক ফুটবলার ওই কর্তাকে প্রশ্ন করেন, ‘‘আমরা মাঠে লড়াই করে সীমিত ক্ষমতার মধ্যে ভাল খেলার চেষ্টা করছি। আপনি মিটিংয়ে থেকে পেরোসেভিচের শাস্তি নিয়ে বললে আমাদের এমনভাবে হারতে হতো না।’’

ওই মেসেজের পালটা জানান ওই কর্তা, ‘‘আমাকে দু’ঘন্টা আগে জানানো হয়েছিল সন্ধ্যে ৭-৩০টা মিটিং, আমার কি আর কোনও কাজ থাকতে পারে না? ঠিক আছে তোমাদের যখন মনে হয়েছে আমি অযোগ্য, তা হলে আমি গ্রুপ ছেড়ে দিলাম।’’ এই বলে প্রাক্তন কর্ণেল গ্রুপ ছেড়ে চলে যান।

এই ঘটনা কানে গিয়েছে বিনিয়োগকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্টের কর্ণধার হরিমোহন বাঙুরের। তিনি এক সাক্ষাৎকারে এদিন বলেন, ‘‘আমারও তো অবাক লাগছে ওরকম একটি গুরুত্বপূর্ণ মিটিংয়ে কেন সিইও থাকলেন না। আমাকে খবর নিতে হবে বিষয়টিতে। সেরকম হলে অন্য কাউকে আনতে হবে ওই পদে।’’

বিষয়টি যে অনেকদূর গড়াতে পারে, সেটি বোঝা গিয়েছে মালিকের কথায়। মাঠের বাইরেও অশান্তির শেষ নেই লাল হলুদে।

 

 

You might also like