Latest News

“একসঙ্গে ভারতের জন্য”, কঠিন সময়ে ভয় কাটিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন ডেলিভারি বয়েরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মহামারীর কবলে এর আগেও মানুষ পড়েছেন। দূরারোগ্য ব্যাধি হলে মানুষকে একঘরে করে দেওয়ার চল ছিল এককালে। যেন অসুস্থ হওয়া মানেই সমাজে অচ্ছুত হয়ে যাওয়া। ভ্যাকসিন, টিকা আবিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত বহু মানুষ এমন কঠিন মুহূর্তের সম্মুখীন হয়েছেন।

করোনা কালে এযুগের ছেলেমেয়েরা লোকমুখে শোনা সেসব কথার যেন চাক্ষুষ প্রমাণ পেল। করোনা পজিটিভ হলে গৃহবন্দি থাকাটা বাধ্যতামূলক। কিন্তু এই ১৪দিন তাঁদেরও তো অনেক কিছুর প্রয়োজন থাকে। কে পৌঁছে দেবে? করোনা হয়েছে শুনলেই তো দরজা, জানলা বন্ধ করে দিচ্ছেন প্রতিবেশীরা।

দুঃসময় আসলে মানুষ চিনিয়ে দেয়। করোনা কালে যখন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাটা বাধ্যতামূলক, ঘর থেকে বেরোতে নিষেধ করছেন প্রত্যেকে, তখন ভয়ডর কাটিয়ে মানুষের প্রয়োজন মেটাতে, তাঁদের পাশে এসে দাঁড়িয়েচ্ছেন বেশ কিছু মানুষ। এই কঠিন সময়েও বাড়ি বাড়ি ঘুরে তাঁরা প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌঁছে দিচ্ছেন অসুস্থদের হাতে। তাঁদের একবার কুর্নিশ জানাবেন না?

এই দুর্দিনে যেমন স্বাস্থ্যকর্মীরা দিবারাত্র পরিশ্রম করছেন, অন্যদিকে থেমে নেই ডেলিভারি ম্যানরাও। ভারতবর্ষের বিভিন্ন প্রান্তে, বড় শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রামে গ্রামে তাঁরা পৌঁছে দিচ্ছেন প্রয়োজনীয় সামগ্রী। তেল, ডাল, চাল, নুন, ওষুধ, পোষ্যের খাবার, কী নেই! অ্যামাজন, বিগবাস্কেট, মেডলাইফ, গ্রোফার্সের ডেলিভারি বয়রা ২৪ ঘণ্টা দৌড়ে বেড়াচ্ছেন এই পরিস্থিতিতেও।

সম্প্রতি ভারতের এই ই-কমার্স কোম্পানিগুলো একসঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করে তারা জানিয়েছে সে খবর। ডেলিভারি ম্যানদের ছবির সঙ্গে #টুগেদারফরইন্ডিয়া এবং #হামসবএকসাথ হ্যাশট্যাগ দিয়ে তারা এই পোস্টটি শেয়ার করে। এই কঠিন সময়ে আমরা সবাই একসঙ্গে আছি আমাদের দেশের জন্য- এমন বার্তাই পৌঁছে দিতে চেয়েছেন তাঁরা।

তাঁরাও তো মানুষ। তাঁদেরও পরিবার আছে, আপনজন আছে। চাইলে তাঁরাও ঘর বন্ধ করে বসে থাকতে পারতেন। কিন্তু দুবেলা দুমুঠো খাবারের জন্য, অল্প রোজগারের জন্য তাঁরা ভয় কাটিয়ে ছুটে বেড়াচ্ছেন প্রতিদিন। সেই কারণেই জিনিস কেনার পাশাপাশি স্বেচ্ছায় অল্পকিছু অর্থ পারিশ্রমিক হিসেবে তাঁদের দিতে পারেন। এই সময় প্যানিক করে অনেক কিছু একসঙ্গে না কিনে, ধীরে সুস্থে কিনতে পারেন। কারণ প্রয়োজন মেটাতে তাঁরা সবসময় আপনাদের পাশে আছে। থাকবে।

You might also like