Latest News

‘জনতার রায়ই ঈশ্বরের রায়’, ভোটে জিতে টুইটারে ফিরছেন ট্রাম্প, ঘোষণা মাস্কের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জনতা জনার্দনের ভোটে ফের টুইটারে (Twitter) ফিরছেন আমেরিকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump)। রবিবার ভারতীয় সময় ভোর ৬টা ২৩ মিনিটে টুইট করে এমনটাই জানালেন টুইটারের নতুন মালিক ইলন মাস্ক (Elon Musk)। গতকালই ট্রাম্পকে টুইটারে ফেরানো হবে কি না, তা নিয়ে ভোটের আয়োজন করেছিলেন মাস্ক। যেখানে ভোট দিয়ে নিজের মতামত জানিয়েছেন অসংখ্য মানুষ। তার ফলাফল অনুযায়ীই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, ইলন মাস্কের এই ভোটাভুটিতে অংশ নিয়েছিলেন প্রায় ১ কোটি ৫০ লক্ষ মানুষ। গত বছর আমেরিকার ক্যাপিটলে হামলার সঙ্গে যুক্ত থাকা এবং সেই হিংসায় ইন্ধন দেওয়ার অভিযোগে ট্রাম্পকে টুইটার থেকে চিরতরে নির্বাসিত করা হয়েছিল। তবে নতুন মালিক আসতেই শুরু হয়ে গেল নির্বাসন তোলার প্রস্তুতি। টুইটারে আবার ফিরতে চলেছেন ট্রাম্প।

‘ট্রাম্পকে কি টুইটারে ফিরিয়ে আনা উচিত?’ এমনই প্রশ্ন তুলে শনিবার ভোটাভুটি চালু করেছিলেন ইলন মাস্ক। সেই ভোটের ফলাফলে দেখা যায়, অল্পের জন্য জিতে গিয়েছেন ট্রাম্প। তাঁর পক্ষে ভোট দিয়েছেন ৫১. ৮ শতাংশ মানুষ। বিপক্ষে ৪৮. ২ শতাংশ। এরপরই আজ ফের একটি টুইট করে মাস্ক লিখেছেন, ‘জনগন নিজেদের মতামত জানিয়েছেন। তাই ট্রাম্প আবার টুইটারে ফিরবেন।’ সেই সঙ্গে ল্যাটিনে লিখেছেন, ‘ভক্স পপুলি ভক্স দেই’। যার অর্থ, ‘মানুষের কণ্ঠস্বরই ঈশ্বরের কণ্ঠস্বর’।

ইতিমধ্যেই ইলন মাস্কের এই ভোটাভুটি নিয়ে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। যেভাবে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে ট্রাম্পকে টুইটার থেকে নির্বাসিত করা হয়েছিল, মাস্কের এমন সিদ্ধান্তের পর অনেকেই বলছেন, এই ভোটাভুটি সেই নির্দেশেরই একপ্রকার অবমাননা করল। ইতিমধ্যে বহু মানুষ সেই টুইটের রিপ্লাইয়ে ট্রাম্পকে ফেরানোর বিরোধিতা করেছেন। আবার বেশ কিছু টুইটার ব্যবহারকারী ‘ব্রিং ব্যাক ট্রাম্প’ স্লোগানও তুলেছেন।

টুইটার, মেটা, আমাজনের পরে জোম্যাটো! ফের ছাঁটাইয়ের চোখরাঙানি, কাজ হারাতে পারেন বহু মানুষ

You might also like