Latest News

বায়ুসেনা কি পাকিস্তানের গাছ ধ্বংস করতে গিয়েছিল? প্রশ্ন সিধুর

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কেন পাকিস্তানের সীমা পেরিয়ে হানা দিয়েছিল ভারতের বায়ুসেনা? সোমবার প্রশ্ন তুললেন পাঞ্জাবের মন্ত্রী তথা প্রাক্তন ক্রিকেটার নভজ্যোৎ সিং সিধু। তিনি টুইটারে লিখেছেন, বায়ুসেনা জঙ্গিদের মারতে গিয়েছিল না গাছ ধ্বংস করতে গিয়েছিল?

সরকারের দাবি, পুলওয়ামায় জঙ্গি হানার প্রতিশোধ নিতে পাকিস্তানে অভিযান চালিয়েছে ভারতের বায়ুসেনা। বোমা ফেলা হয়েছে সন্ত্রাসবাদী জইশ ই মহম্মদের শিবিরে। অন্তত সাড়ে তিনশ জন মারা গিয়েছে। পরে মৃতের সংখ্যা নিয়ে নানা বিভ্রান্তি দেখা যায়। আন্তর্জাতিক মিডিয়াও বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলে। বিজেপির সাংসদ এস এস অহলুওয়ালিয়াও বলেন, বিমান হানায় কেউ মারা যায়নি। সিধু টুইটারে অহলুওয়ালিয়ার মন্তব্য ও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্টের স্ক্রিন শট টুইটারে পোস্ট করেছেন। তার সঙ্গে লিখেছেন, শোনা যাচ্ছে, ৩০০ জঙ্গি মারা গিয়েছে। কথাটা কি সত্যি? বিমান হানার উদ্দেশ্য কী ছিল? জঙ্গি ঘাঁটি ধ্বংস করা না গাছ ধ্বংস করা? নির্বাচনের জন্যই কি বিমান হানা দেওয়া হল? বিদেশী শত্রুর বিরুদ্ধে যুদ্ধের নামে আমাদের ধোঁকা দেওয়া হচ্ছে।

এরপর বিজেপির উদ্দেশে সিধু বলেছেন, আর্মি নিয়ে রাজনীতি করবেন না। সেনাবাহিনী দেশের মতোই পবিত্র।

এর আগে পুলওয়ামার জঙ্গি হানা নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন সিধু। তাতে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছিল। তিনি বলেন, ওই হামলার জন্য পুরো পাকিস্তানকেই দায়ী করা যায় না।

একইসঙ্গে তিনি বলেন, সন্ত্রাসবাদকে ধ্বংস করতে হলে অস্ত্র হতে পারে শান্তি, উন্নয়ন ও প্রগতি। বেকারত্ব, ঘৃণা ও ভয় দিয়ে কোনও সমস্যার সমাধান হয় না।

এর আগে সিধু পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনার আহ্বান জানিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি করেন। তাঁর কথায়, সন্ত্রাসবাদ সমস্যার দীর্ঘস্থায়ী সমাধান করার জন্য পাকিস্তানের সঙ্গে কথা বলতে হবে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় দুই দেশের সংঘর্ষ বৃদ্ধি পাওয়ার প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, শত্রুতা যদি আরও বাড়ে তাহলে হয়তো অপূরণীয় ক্ষতি হতে পারে। এমন অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে যখন দুই দেশের পক্ষেই আর ফিরে আসা সম্ভব হবে না।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে সিধু বন্ধু বলে দাবি করেন। বন্দি ভারতীয় পাইলটকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য তিনি ইমরানের প্রশংসা করেছেন। ইমরানও ভারতের সঙ্গে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছেন। তিনি বলেন, আমাদের দুই দেশের কাছে বিপুল পরিমাণ পরিমাণ অস্ত্র আছে।  আমাদের কি সত্যিই কোনও ভুল করার অবকাশ আছে?

You might also like