Latest News

Dibyendu Adhikari: ‘পূর্ব মেদিনীপুরে ট্র্যাফিকের নামে অরাজকতা! শৃঙ্খলা নেই, কেস দিতে ব্যস্ত পুলিশ’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের বিস্ফোরক তমলুকের সাংসদ তথা শুভেন্দু অধিকারীর সেজো ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী (Dibyendu Adhikari)। এবার পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পুলিশ প্রশাসনের ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ে গুরুতর অভিযোগ তুলেছেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় ট্রাফিক ব্যবস্থা চূড়ান্তভাবে ভেঙে পড়েছে। পুলিশের যা করা উচিত তা সিভিক ভলান্টিয়ার দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করানো হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, তিনি আরও দাবি করছেন, নন্দকুমার-দিঘা ১১৬ বি জাতীয় সড়কের উপর একের পর এক বাম্প, হাম্প ইত্যাদি তৈরি করা হয়েছে, যা অবৈজ্ঞানিক ও জাতীয় সড়কের নিয়মের বিরুদ্ধে। তাঁর অভিযোগ, গোটা রাস্তায় পুলিশ যেখানে-সেখানে ধরছে, চালান কাটছে, টাকা নিচ্ছে। রীতিমতো অরাজকতা চলছে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

দিব্যেন্দু অধিকারী (Dibyendu Adhikari) এদিন বলেন, ‘আমাদের একটা সিস্টেম ছিল আগে।’ অর্থাৎ তিনি ইঙ্গিত করেন, সরকারে তাঁরা যখন অ্যাকটিভ ছিলেন, তখন অবস্থা এমনটী ছিল না। এখন অবৈজ্ঞানিক ভাবে ট্র্যাফিক ব্যবস্থা চলছে জেলাতে। এই জেলার পুলিশ মানুষকে কেস দিতে ব্যস্ত। অকারণে কেস দিচ্ছে বলেই অভিযোগ করেন তিনি।

তাঁর কথায়, “সেই সময় অর্থাৎ শুভেন্দু অধিকারীর সময়ে পরিবহণ দফতর জেলা ট্রাফিক দফতরকে বেশ কিছু গাড়ি দিয়েছিল ট্রাফিক ব্যবস্থাকে চাঙ্গা করতে, সেই সব গাড়ি পড়ে রয়েছে, কাজে লাগানো হচ্ছে না। আমি সাংসদ. কিন্তু আমার কোনও কিছু বলার এখন সুযোগ নেই। জেলা পুলিশ সুপারকে ফোন করলে তিনি ফোন ধরেন না। আমার কথা এখন শোনার সময় নেই জেলাশাসকেরও।”

তিনি (Dibyendu Adhikari) এদিন মনে করিয়ে দেন, এই জেলা দিয়ে ভিআইপিদের আনাগোনা রয়েছে। যেভাবে রাস্তায় যানজট তৈরি হয়েছে, তাতে এনএইচ দিয়ে যাওয়াই দুষ্কর। সাংসদকে লোকসভা অধিবেশনের যেতে হলে ফ্লাইট ধরতে যাওয়ার সময়ও ভীষণ মুশকিলে পড়তে হচ্ছে। আগে অনেক কম সময় লাগত, এখন তা দু’ঘণ্টার বেশি লেগে যাচ্ছে।

তিন মাসের মধ্যেই ‘সাধারণ’ নির্বাচন পাকিস্তানে! আদালতে যাচ্ছে বিরোধীরা

You might also like