Latest News

রাঁচির প্রত্যন্ত গ্রামে আয়ুর্বেদ চিকিৎসার জন্য বৈদ্যের কাছে ছুটলেন ধোনি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এম এস ধোনি (M S Dhoni) বলেই সম্ভব। তাঁর লক্ষ্য আকাশে, পা থাকে মাটিতেই। যিনি কোটি কোটি টাকার মালিক, সেই ক্যাপ্টেন কুল গেলেন গ্রামের বৈদ্যের কাছে। তাও আবার হাঁটুর চিকিৎসার (Treatment) জন্য।

অনেকদিন ধরেই ধোনি হাঁটুর চোটে কাবু। তিনি পারলে বিশ্বের নামী অস্থি বিশেষজ্ঞদের কাছে যেতেই পারতেন। কিন্তু ধোনি এমন এক চিকিৎসকের কাছে গিয়েছেন, যাঁর ওষুধের দাম মাত্র ৪০ টাকা। এমনকি এই ওষুধ বাড়িতে গিয়ে খাওয়া যায় না, সঙ্গে সঙ্গে খেয়ে নিতে হয়।

গড়িমসি করতেই বোল্ড কোহলি, শুরুতেই ব্রিটিশ পেসে নাজেহাল ভারত

রাঁচি থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরে লাপুং থানার কাটিংকেলায় এক বৈদ্যের কাছে যান। একটি গাছের তলায় তাঁবু খাটিয়ে বৈদ্য বন্ধন সিং খারওয়ার নামে ওই ব্যক্তি গত ২৮ বছর ধরে রোগী দেখে চলেছেন। গত এক মাস ধরে তাঁর কাছে যাচ্ছেন ধোনি। ওষুধ আনতে একাধিকবার তিনি বিলাসবহুল গাড়ি নিয়ে গিয়েছেন।

গ্রামের ওই বৈদ্যের মেয়ের সঙ্গেও ছবি তুলেছেন মাহি। গ্রামের বাকিদের সঙ্গে সহজভাবে মিশেছেন কিংবদন্তী। কে বুঝবে তিনিই ভারতের বিশ্বজয়ী অধিনায়ক। তাঁর মুকুটে বহু পালক।

এমনকি ধোনির মতো বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব প্রথমদিন গেলেও ওই চিকিৎসক তাঁকে চিনতেই পারেননি। তিনি সাধারণ লোক মনে করে চিকিৎসা করেছেন। কিন্তু গ্রামের মানুষ জড়ো হয়ে ছবি তুলতেই ওই বৈদ্য বুঝে যান এই ব্যক্তি সাধারণ নন!

ধোনির বাবা-মা’কেও চিনতে পারেননি গ্রাম্য চিকিৎসক। ওই চিকিৎসক জানান, ‘‘কোনওরকম তারকা সুলভ আচরণ ছাড়াই ধোনি আমার কাছে এসেছিলেন। তাঁর মধ্যে কোনও দেখনদারি নেই। চারদিন অন্তর ওই ওষুধটি দিতে হতো। শেষদিকে ধোনি আর গাড়ি থেকে নামতেন না, কেউ এসে তাঁর ওষুধ গাড়িতেই দিয়ে দিত।’’

You might also like