Latest News

নির্লিপ্ত ‘ডার্বির নায়ক’, আইডল মেসি, দলকেই জয় উৎসর্গ করলেন কিয়ান নাসিরি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অভিষেক ডার্বি ম্যাচেই হ্যাটট্রিক কিয়ান নাসিরির। আইএসএলের ম্যাচে সিনিয়র দলের হয়ে তাঁর স্বপ্নের পারফরম্যান্স। তারপরেও পা মাটিতেই রয়েছে ডার্বি নায়কের। হাওয়ায় ভাসার কথা ছিল, কিন্তু তিনি যেহেতু তারকা পুত্র, সেই কারণেই কিয়ান জানেন খোলসে ঢুকে থাকতে। তিনি নির্লিপ্তই।

২১ বছর বয়সে লাল হলুদের বিরুদ্ধে ঝলসে উঠেছেন সুপার সাব হিসেবে মাঠে নেমে। মাত্র ২৯ মিনিট মাঠে ছিলেন, তার মধ্যেই তিনটি গোল করে ইতিহাসে স্থান করে নিয়েছেন। এর আগে কলকাতা ডার্বিতে চারজনের মাত্র হ্যাটট্রিক রয়েছে, কিয়ান পঞ্চম সেই ব্যক্তি।

রবিবার তিনি কথা বলেছেন দলের মিডিয়া অফিসারের সঙ্গে। সেই সাক্ষাৎকারে কিয়ান জানিয়েছেন, ‘‘ডার্বিতে নেমে হ্যাটট্রিক করেছি এটা এখনও আমার কাছে স্বপ্নের মতো। ডার্বিতে গোল করার স্বপ্ন সবারই থাকে, আমারও ছিল। তা সত্ত্বেও বলছি, আমি মূলত উইঙ্গার ও স্ট্রাইকার, গোল করাটাই আমার কাজ, সেটাই করেছি। ইতিহাস নিয়ে মাথা ঘামাতে চাই না।’’

এবারের পরের লক্ষ্য কি, সেই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে কিয়ান বলেছেন, ‘‘আমার লক্ষ্য যতটা সম্ভব মাঠে থাকা। কারণ আমি তো রবিবার সকালেও জানতাম না ম্যাচটিতে আমি মাঠে নামব। আমাদের দলে সবাই তারকা, সেখানে আমাকে কোচ নামিয়েছেন, এটাই আমার কাছে অনেক ছিল। কোচের ভরসা রাখতে পেরে ভাল লাগছে।’’

ডার্বিতে গোল করে থেমে থাকতে চান না জামশিদ-পুত্র। পরের ম্যাচে সুযোগ পেলেই আরও ভাল খেলতে চান তিনি। তবে এই শনিবারটি তাঁর কাছে স্বপ্নের। জুনিয়র নাসিরি বলেন, ‘‘তিনটি গোলের মধ্যে দ্বিতীয়টাই সেরা। কারণ ওই গোলেই আমরা এগিয়ে গিয়েছি। সবুজ-মেরুন জার্সিতে জুনিয়র ডার্বিতে খেলেছি। কিন্তু সিনিয়র দলে প্রথম। হোটেল থেকে মাঠে আসার সময় কোনও লক্ষ্য নিয়ে আসিনি। ভেবেছিলাম এ রকম একটা ম্যাচে আমি কী সুযোগ পাব? দল যখন পিছিয়ে, তখন আমি নেমেছি। তবে আমার উপর কোনও চাপ ছিল না। গোল করব ভেবে নামিনি। লক্ষ্য ছিল একটাই, তিন পয়েন্ট তুলতে হবে।’’

সেই তিন পয়েন্ট পেয়েও অবশ্য উৎসবে মাততে রাজি নন কিয়ান। তিনি বলেন, ‘‘উৎসব করার মতো কিছু হয়নি। তাই সে রকম কেউ কিছু করিনি। ডার্বিতে জিতে অনেক রাতে হোটেলে ফিরে খাবার খেয়ে সবার মতো আমিও শুয়ে পড়েছি। বাড়ির কারও সঙ্গে কথা বলতে পারিনি। রবিবার মা ও পরিবারের অন্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। তবে বাবার সঙ্গে কথা হয়নি। বাবা মাঠে গিয়েছিলেন ট্রেনিং করাতে। আমার বাবার কোনও খেলা আমি দেখিনি। শুনেছি উনিও ডার্বিতে অনেক গোল করেছেন। বাবার সঙ্গে মাঠে প্র্যাকটিস করেছি। বাবা কখনও কোনও লক্ষ্য বেঁধে দেননি। উনি শুধু বলেন, “পরিশ্রমের কোনও বিকল্প নেই।’’

কিয়ান আরও জানান, ম্যাচের আগে বাবার সঙ্গে কথা হয় না। শনিবারও হয়নি। বলেছেন, ‘‘ম্যাচের আগে বাবার সঙ্গে কথা হয় না। তিন জন কোচের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। বর্তমান কোচ ফার্নান্দো, প্রাক্তন কোচ হাবাস এবং টিয়েন ল। এই হ্যাটট্রিক আমি উৎসর্গ করতে চাই পুরো দলকে।’’

তিনি স্পর্শ করেছেন বাইচুং, চিডিদের মতো তারকাদের। কিয়ান জানেন সেটি। তাই বলেছেন, ছোটবেলা থেকে ওঁদের নাম শুনেছি, ভাবিনি ওঁদের পাশে আমারও নাম বসবে। তবে কিয়ানের আইডল লিওনেল মেসি। ‘‘আমি সুযোগ পেলেই মেসির খেলা দেখি, ওকেই আমি অনুসরণ করি।’’

 

 

You might also like