Latest News

দিল্লিতে ধরাশায়ী বিজেপি, পুরভোটে বিপুল জয় আম আদমি পার্টির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত ১৫ বছর ধরে দিল্লি পুরসভায় (Delhi MCD Election) এক টানা ক্ষমতায় ছিল বিজেপি (BJP)। সেই গণভিত্তিতে জোরালে ধাক্কা মেরে পুরভোটে তাদের ধরাশায়ী করে ফেলল অরবিন্দ কেজরিওয়ালের (Arvind Kejriwal) আম আদমি পার্টি (AAP)। এখনও পর্যন্ত যা খবর তাতে আড়াইশো আসনের দিল্লি পুরসভায় ১৩৬ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে আম আদমি পার্টি। বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ১০২টি আসনে। যার অর্থ পরিষ্কার, দিল্লিতে পুরবোর্ড গঠনের জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে ফেলেছেন কেজরিওয়ালরা।

গত ৪ ডিসেম্বর দিল্লিতে পুর নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হয়েছে। বুধবার সকাল ৮টা থেকে তার গণনা শুরু হয়েছে। তাৎপর্যপূর্ণ হল, এবার ভোটের পর বুথ ফেরত তামাম সমীক্ষায় ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল যে দিল্লিতে স্যুইপ করবে আপ। তা হয়তো পুরোপুরি হয়নি। কিন্তু আম আদমি পার্টি যে জয় সুনিশ্চিত করেছে তা কম বড় নয়।

কেন এই জয় বড়?

২০১৫ সালে বিধানসভা ভোটে দিল্লিতে ৭০টি আসনের মধ্যে ৬৭টি জিতেছিল আপ। বিজেপি জিতেছিল মাত্র ৩টি আসনে। কিন্তু তার পরেও ২০১৭ সালে পুরভোটে দিল্লি পুরসভায় ক্ষমতা ধরে রাখতে সফল হয় বিজেপি। সেবার ১৮১টি আসনে জিতেছিল গেরুয়া শিবির। রাজ্যে ক্ষমতায় থাকলেও কেজরিওয়ালের পার্টি জিতেছিল মাত্র ৪৮টি আসনে। আর ৩০টি আসনে জিতেছিল কংগ্রেস। বিজেপির সেই গণভিত্তিতে কেজরিওয়াল জবরদস্ত ধাক্কা মেরেছেন। ১৮১ থেকে এক ধাক্কায় বিজেপির আসন সংখ্যা প্রায় ৮০টি কমে যাওয়ার পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে। আবার আপ যে ভাবে আসন বাড়িয়েছে তা রূপকথার গল্পের মতই।

দিল্লি সরকারে ২০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ক্ষমতায় নেই বিজেপি। কিন্তু তা সত্ত্বেও দিল্লি পুরসভা তারা দখলে রাখতে পেরেছিল। তা সে কেন্দ্রে ইউপিএ জমানায় হোক বা দিল্লিতে কেজরিওয়াল জমানায়। এ হেন পরিস্থিতিতে পুরভোটে বিজেপিকে পরাস্ত করতে কেজরিওয়াল অনেক দিন ধরেই ঘুঁটি সাজানো শুরু করেছিলেন। দেখা যাচ্ছে, তাতে ফল দিতে শুরু করেছে।

এদিন গণনা শুরু হতেই কেজরিওয়ালের বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছিলেন মণীশ সিসোদিয়া, রাঘব চাড্ডা-সহ আপের নেতারা। পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবত মানও পৌঁছে গেছিলেন কেজরিওয়ালের বাড়িতে। পুরভোটে এক্সিট পোলের ফলাফল দেখে উদযাপনের পুরোদস্তুর প্রস্তুতিও করে রেখেছিল আপ। তবে গণনায় প্রাথমিক ভাবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখা যাচ্ছে, তাঁরা কিছুটা থমকে ছিলেন। কিন্তু ম্যাজিক নম্বর পেরিয়ে যাওয়ার পরে উদযাপনে নেমে পড়েছেন আম সমর্থকরা। দিল্লি সরকার ও পুরসভা দুটোই এখন তাদের দখলে।

সাম্প্রতিক কালে কোনও পুরভোটকে কেন্দ্র করে এমন দ্বৈরথ হয়নি। এই ভোটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে এক প্রকার প্রচারে নামিয়ে দিয়েছিল বিজেপি। বিজেপির একঝাঁক কেন্দ্রীয় নেওতাকে নামানো হয়েছিল প্রচারে। বাঙালি ও বিহারি অধ্যুষিত এলাকায় বাংলা ও বিহারের কেন্দ্র ও রাজ্য নেতাদের প্রচারে নামানো হয়েছিল।

সন্দেহ নেই দিল্লি নির্বাচনের এই ফলাফল বিজেপির জন্য বড় ধাক্কা। একে দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আম আদমি পার্টির কাছে হালে পানি পাচ্ছে না গেরুয়া শিবির। তার উপর কেন্দ্রীয় সরকারের নাকের ডগায় দিল্লি পুরসভা হাতছাড়া হল। এ ঘটনা দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের জন্যও অস্বস্তির কারণ হতে পারে। এমনকি বৃহস্পতিবার গুজরাত ভোটের ফলাফলে বিজেপির বড় জয় সুনিশ্চিত করলেও দিল্লির ফলাফল কাঁটা হয়ে থাকবে বলে মত অনেকের।

যিনি ধেড়ে ইঁদুর চেনেন, তাঁকে তদন্তে ডাকা হোক, টুইট কুণালের

You might also like