Latest News

মোদীকে দোষ দিয়ে ফেসবুক লাইভে আত্মহত্যার চেষ্টা ঋণগ্রস্ত ব্যবসায়ীর, মৃত স্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ‘মোদীজি, (Modiji) আপনি ছোট ব্যবসায়ীদের শুভাকাঙ্ক্ষী (Well Wisher) নন।’ এই বলে একটি কৌটো খুলে বিষের ট্যাবলেট মুখে দিলেন মধ্যবয়সী এক ব্যক্তি। ফেসবুক লাইভে (Facebook Live) এই ভিডিও দেখে  হইচই শুরু হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। পরে জানা যায়, যিনি ওই ফেসবুক লাইভ করছিলেন, তাঁর নাম রাজীব তোমর। বয়স ৪০। বাড়ি বাগপতে। বৃহস্পতিবার উত্তরপ্রদেশের যে অঞ্চলগুলিতে ভোট হবে তার মধ্যে বাগপতও রয়েছে।

রাজীব তোমর জুতোর ব্যবসা করতেন। বেশ কিছুদিন ধরে তিনি আর্থিক সংকটে ভুগছিলেন। তাঁর দু’টি সন্তান রয়েছে। সম্প্রতি তিনি ও তাঁর স্ত্রী পুনম বিষপান করে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন। বিষ খেয়ে রাজীব মারা যাননি। কিন্তু ৩৮ বছর বয়সী পুনমের মৃত্যু হয়েছে।

তোমর দম্পতির বিষপানের ভিডিও-র দৈর্ঘ্য দুই মিনিট। ওই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। অনেকে এসম্পর্কে কমেন্ট করেছেন। প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরাও।

রাজীব তোমর ফেসবুক লাইভে বলেছেন, জিএসটি চালু হওয়ার ফলে তাঁর ব্যবসা উঠে যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যায়, রাজীব একটি কৌটো খুলে বিষের বড়ি মুখে দিলেন। তাঁকে থামাতে চেষ্টা করেছিলেন স্ত্রী। এমনকি রাজীব বিষ খাওয়ার পরেও তিনি চেষ্টা করছিলেন যাতে তিনি বড়িটি মুখ থেকে ফেলে দেন।

ফেসবুক লাইভে ব্যবসায়ী বলেন, “আমার কথা বলার স্বাধীনতা আছে। আমি যা ঋণ করেছি, সব শোধ করে দেব। আমি মারা যাওয়ার পরেও ঋণদাতারা ঠিকই টাকা পেয়ে যাবেন। আমি দেশবিরোধী নই। আমি সকলের কাছে অনুরোধ করছি, এই ভিডিওটি যত বেশি সম্ভব শেয়ার করুন। মোদীজিকে আমি একটা কথাই বলতে চাই। আপনি ছোট ব্যবসায়ী ও কৃষকদের শুভাকাঙ্ক্ষী নন। আপনার নীতি বদলান।”

যাঁরা ফেসবুক লাইভে ওই ভিডিও দেখেছিলেন, তাঁদের কেউ কেউ পুলিশে খবর দেন। পুলিশ রাজীবদের বাড়িতে গিয়ে দু’জনকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে পুনম মারা যান।

প্রিয়ঙ্কা টুইট করে বলেন, ফেসবুক লাইভে দম্পতির আত্মহত্যার চেষ্টার কথা শুনে গভীর দুঃখ পেয়েছি। আশা করি রাজীবজি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন। কংগ্রেসের ভোটের ইশতেহার প্রকাশের পরে প্রিয়ঙ্কা বলেন, পুরো উত্তরপ্রদেশে ছোট ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। নোটবন্দি, জিএসটি এবং লকডাউনে তাঁদের অবস্থা শোচনীয় হয়ে উঠেছে।

You might also like