Latest News

করোনা রোগী বাড়ছে বেলেঘাটা আইডিতে, অবিলম্বে কড়া কোভিডবিধি চান চিকিৎসকরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তিন সপ্তাহ আগে একজনও রোগী ছিলেন না। করোনার (Covid 19) গ্রাফ আচমকাই উর্ধ্বমুখী। ফের বাড়ছে সংক্রমণও। রোগীও বাড়তে শুরু করেছে বেলেঘাটা আইডি (Beleghata ID Hospital) হাসপাতালের দুটি কোভিড ওয়ার্ডে। সোমবার দুপুর পর্যন্ত রোগীর সংখ্যা ১৭ জন। যার মধ্যে দু’একজন বাদে বেশিরভাগ রোগীকেই অক্সিজেন দিতে হচ্ছে। সিসিইউতেও রয়েছেন ক’য়েকজন।

Covid 19

গত চার মাস ব্যস্ততা প্রায় ছিলই না বেলেঘাটা আইডির (Kolkata) করোনা ওয়ার্ডে। কিন্তু দু’একসপ্তাহে ফের বাড়ছে উদ্বেগ। অসুস্থ করোনা পজিটিভ রোগী আসতে শুরু করেছে। চিকিৎসকরা জানালেন, একাধিক অসুস্থতা বা গুরুতর অসুস্থ রোগীদেরই আনা হচ্ছে। তবে এখন উপসর্গহীন রোগীর সংখ্যাই বেশি। ক’য়েকদিন আগেই বেলেঘাটা আইডিতে ৩৫ বছরের এক রোগী করোনা আক্রান্ত হয়ে ভর্তি ছিলেন। পরে মারা যান।

Covid 19

হাসপাতালের অতিরিক্ত সুপার অনির্বাণ হাজরা জানালেন, ‘ফের কোভিডবিধিতে জোর দেওয়া উচিত। কারণ চতুর্থ ঢেউ শুরু হয়ে যেতে পারে। উপসর্গহীন রোগী বাড়ার কারণ হিসেবে তাঁর বক্তব্য, ‘অল্পবয়সীদের মধ্যে সচেতনতা ফিরিয়ে আনতে হবে। অনেকের শরীরেই অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। সেকারণেই সংক্রমিত হলেও টের পাচ্ছেন না তাঁরা। ফলে বহু মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন।’

Covid 19

করোনা আক্রান্ত মগরাহাটের এক বৃদ্ধাকে এদিন নিয়ে আসা হয়েছে বেলেঘাটা আইডিতে। অ্যাম্বুল্যান্সের চালক কার্তিক মালি ও তাঁর সহকারীর পরনে আপাদমস্তক পিপিই। কার্তিক বললেন, চার মাস পর ফের পিপিই পরতে হচ্ছে। ক’য়েকমাস পরিস্থিতি ভাল ছিল। বর্ষায় ফের করোনার দাপট বেড়েছে।’

আরও পড়ুন: ‘কোভিডটা একটু বেড়েছে, মাস্ক পরুন’, ফের করোনা বিধি মেনে চলার আবেদন মুখ্যমন্ত্রীর

ওই বৃদ্ধার ছেলে জানালেন, ক’য়েকদিন ধরেই গলা ব্যথায় কষ্ট পাচ্ছিলেন তাঁর মা। সেখানে ডাক্তার দেখানোর পর করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ ধরা পড়ে। তারপর এখানে নিয়ে আসা হয়।

Covid 19

বেলেঘাটা আইডি-র চিকিৎসক ভাস্কর মান্না বললেন, ‘চতুর্থ ঢেউ চলছে। যতদিন যাবে ঢেউয়ের ক্ষমতা কমবে। কিন্তু সচেতনতা বাড়াতে হবে। এখন সংক্রমণ বাড়বে। তাই কোভিডিবিধি মেনে চলতে হবে সকলকেই।’

Covid 19

করোনা বাড়ার পিছনে বুস্টার ডোজে অনীহার কথাও বললেন তিনি। ভাস্করবাবুর কথায়, ‘বয়স্ক নাগরিক ও প্রথম সারির কর্মী ছাড়া কাউকে বিনামূল্যে ওই ডোজ দেওয়া হচ্ছে না। কিনতে হচ্ছে। ওই ডোজ নিতে মানুষের মধ্যে উৎসাহ কম। সেই কারণেও করোনা বাড়ছে। সমস্যায় পড়ছেন অন্যান্য অসুখে আক্রান্তরা।’

You might also like