Latest News

‘নব সংকল্প-নব উদয়-আমরা করব জয়’, ডাক সনিয়ার, গান্ধী জয়ন্তীতে ভারত-জড়ো যাত্রা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: উদয়পুরের চিন্তন শিবিরের কংগ্রেস (Congress) আনুষ্ঠানিক নাম দিয়েছিল নব সংকল্প শিবির। তিনদিনের শিবিরের শেষ দিনে রবিবার কংগ্রেসের কার্যনির্বাহী সভাপতি সনিয়া গান্ধী (Sonia Gandhi) প্রথম দিনের মতোই জ্বালাময়ী, একই সঙ্গে আবেগতাড়িত ভাষণ দিলেন।

নরেন্দ্র মোদী সরকারের অপশাসনের কথা বলতে গিয়ে কংগ্রেস (Congress) নেত্রী উদয়পুরের মঞ্চে সম্পূর্ণ ভিন্ন মেজাজে নিজেকে হাজির করেছিলেন। বলেছিলেন, বিজেপি ও কেন্দ্রীয় সরকার দেশকে পাকাপাকিভাবে মেরুকরণের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আরও বলেছিলেন, মুসলিমদের নানাভাবে নির্যাতিত করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী সব দেখে, জেনেও চুপ করে আছেন। এই পরিস্থিতির মোকাবিলায় কংগ্রেস কর্মীদের আত্মত্যাগ এবং দেশ ও দলের ঋণ পরিশোধের কথা বলে ভাষণে ইতি টেনেছিলেন।

রবিবার সংক্ষিপ্ত সমাপ্তি ভাষণে বলেছেন কী করতে হবে। সনিয়ার বক্তব্য, কংগ্রেসের এখন কাজ দেশকে একত্রিত রাখা। তাই আগামী ২ অক্টোবর মহাত্মা গান্ধীর জন্মজয়ন্তীতে কংগ্রেস কন্যাকুমারী থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত পদযাত্রা করবে। এই অভিযানের নাম দেওয়া হয়েছে ভারত-জোড় যাত্রা।

অর্থাৎ কংগ্রেস (congress) বার্তা দিতে চাইছে বিজেপি দেশকে বিভেদের রাজনীতির জাঁতাকলে ফেলে টুকরো টুকরো করতে চাইছে। অন্যদিকে, কংগ্রেস চাইছে দেশের শান্তি-সম্প্রীতি রক্ষার মাধ্যমে অখণ্ড রাখতে। সনিয়া জানিয়েছেন, ২ অক্টোবরের কর্মসূচি সর্বভারতীয়। গোটা দেশ থেকে কংগ্রেসের নেতা-কর্মীরা যোগ দেবেন ভারত-জোড় যাত্রায়। কংগ্রেস তাতে সামাজিক, ধর্মীয়, সাংস্কৃতিক বন্ধনের কথা বলবে।

মোদী সরকার ২০১৯-এর ৫ আগস্ট আচমকাই সংবিধানের ৩৭০ নম্বর অনুচ্ছেদ বিলোপের কথা ঘোষণা করে। সংবিধানের ওই অনুচ্ছেদে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদার কথা বলা ছিল। বিজেপি গোড়া থেকেই কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদার বিরুদ্ধে। তাদের বক্তব্য, দেশের কোনও ভূ-খণ্ডের বিশেষ মর্যাদা থাকতে পারে না। কংগ্রেসের বক্তব্য, আপাল আলোচনা ছাড়াই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করে কাশ্মীরকে বিজেপি সরকার আবার অশান্ত করে তুলেছে। কন্যাকুমারী থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত যাত্রার ঘোষণা দিয়ে সনিয়া আসলে কাশ্মীর প্রশ্নে দলের অবস্থানকে স্পষ্ট করতে চাইলেন। তাছাড়া, অক্টোবরের শেষ বা নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে কাশ্মীরে বিধানসভার ভোট হতে পারে।

সনিয়া এদিন আবেগ তাড়িত হয়েও পরক্ষণে নিজেকে সামলে নিয়ে দৃপ্তকণ্ঠে বলেছেন, ‘আমরা করব জয়। আমরা করব জয়। আমরা করব জয়। আমরা এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠব। কাটিয়ে উঠব। কাটিয়ে উঠব। এটাই আমাদের সংকল্প। এটাই আমাদের নবসংকল্প। কংগ্রেস নতুন করে উদিত হবে। এটাই আমাদের নব সংকল্প।’

দেশের বিখ্যাত দশ বাজার! কী কী পাওয়া যায় ভাবতেও পারবেন না, একটি আছে কলকাতাতেই

You might also like