Latest News

রাজ্যে রাজ্যে ছুটছেন রাহুল, হরিয়ানা-কেরলের পর এবার তেলেঙ্গানা, রাজস্থান… কেন?

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নরেন্দ্র মোদীর স্বপ্ন কংগ্রেস (Congress) মুক্ত ভারত। প্রবীণ কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন সাংসদ মনীশ তিওয়ারির মতে, কংগ্রেস এখন সত্যিই অস্তিত্ব সংকটের মুখে। একের পর এক নির্বাচনে পরাজয়ের জেরে দলের হাতে ক্ষমতা এখন মাত্র দুটি রাজ্যে- রাজস্থান ও ছত্তিশগড়। মোদীর প্রধানমন্ত্রিত্বের সময়ে হওয়া ৪৯টি নির্বাচনের মধ্যে ৩৯টি হেরেছে কংগ্রেস।

এই পরিস্থিতিতে গান্ধী পরিবারের দিকে আঙ্গুল উঠতেই সক্রিয় হয়ে উঠেছেন রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। তাঁর সক্রিয়তা নিয়ে রীতিমত আলোচনা শুরু হয়েছে দলে।

গত বৃহস্পতিবার মাত্র কয়েক ঘন্টার নোটিসে কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি ছোটেন কর্ণাটকে। সেখানে আগামী বছরের মাঝামাঝি নাগাদ বিধানসভার ভোট। কিন্তু বিজেপি সরকার ভোট এগিয়ে আনতে পারে বুঝে রাজ্য কংগ্রেসের আবেদনে সেখানে যান রাহুল। কারণ পরদিন যাওয়ার কথা ছিল কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের।

কর্ণাটকে যাওয়ার আগে রাহুল দু’দিনের জন্য গিয়েছিলেন হরিয়ানায়। সেখানে পরের বিধানসভা ভোট ২০২৪- এ। কিন্তু সেখানে যাতে দল পাঞ্জাবের মতো অন্তর্দ্বন্দ্বে জড়িয়ে না পরে সেজন্য দফায় দফায় রাজ্য নেতাদের সঙ্গে বৈঠক চলে তাঁর।

দু-একদিনের মধ্যেই সনিয়া পুত্র যাবেন তেলেঙ্গানায়। চলতি সপ্তাহে তেলেঙ্গানা সফরের পর এমাসেই যাবেন মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্তিশগড়।

২০১৮ – তে এই তিন রাজ্যেই রাহুলের নেতৃত্বে দল ক্ষমতা দখল করেছিল। সনিয়া পুত্র তখন দলের সভাপতি। কিন্তু বছর দেড়েকের মাথায় বিধায়ক ভাঙিয়ে বিজেপি ফের ক্ষমতা দখল করে মধ্যপ্রদেশে।

কংগ্রেস সূত্রে খবর, রাজস্থান ও ছত্তিশগড় দখলে রেখে মধ্যপ্রদেশে দলকে ক্ষমতায় ফেরাতে রাহুল মরিয়া। আগামী বছর নভেম্বরে এই তিন রাজ্যে ভোট।

রাহুল যাবেন ত্রিপুরাতেও। সেখানে তৃণমূলে যাওয়া কংগ্রেস নেতারা দলে ফিরতে আগ্রহী। তাঁরা চাইছেন রাহুলের নেতৃত্বে ঘরওয়াপসি। উত্তর-পূর্ব ভারতের ওই ছোট রাজ্যটি থেকে বিজেপিকে হটাতে কংগ্রেসের একাংশ অ-বিজেপি সব দলের সঙ্গে হাত মেলাতে আগ্রহী। তাঁরা বলছেন, চার দশক আগে ওই ফর্মুলায় কংগ্রেস ক্ষমতাচ্যুত করতে পেরেছিল সিপিএমকে। এই সব বিষয়ে রাহুলের সঙ্গে আলোচনা জরুরি। হালে তৃণমূল হয়ে বিজেপিতে যাওয়া সুদীপ রায় বর্মণ ফের পুরনো দলে ফিরেছেন।।

সনিয়া পুত্রের রাজ্য সফরের তৎপরতার পিছনে অন্য একটি কারণও আছে, মনে করছে রাজনৈতিক মহল। অগাস্টে কংগ্রেসের সাংগঠনিক ভোট। তখন নতুন স্থায়ী সভাপতি নির্বাচিত হবেন। দলের একাংশ চাইছেন, রাহুল ফের ভার নিন। আর একদল তা চায় না। এই পরিস্থিতিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে আসার রাস্তা খুলতেই রাজ্য সফরে মগ্ন সনিয়া পুত্র।

শিরোনামে ফের সেই ‘হিংস্র’ সাধু, এবার দিল্লিতে ঘৃণা ভাষণ হিন্দু সম্মেলনে

You might also like