Latest News

বাড়ছে কোভিড, উইন্টার অলিম্পিকসের টিকিট বিক্রি করবে না চিন

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ২০২০ সালের মার্চের পরে চিনে এখন সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ কোভিডে আক্রান্ত (Covid Infected) হয়েছেন। এই প্রেক্ষিতে দেশে উইন্টার অলিম্পিকসের (Winter Olympics) টিকিট বিক্রি না করার সিদ্ধান্ত নিল সরকার। গত বছর বেজিং (Bejing) থেকে ঘোষণা করা হয়, শীতকালীন অলিম্পিকসে বিদেশি দর্শকদের খেলা দেখার অনুমতি দেওয়া হবে না। সরকারের আশঙ্কা ছিল, বিদেশিদের আসতে দিলে দেশে নতুন করে কোভিড ছড়িয়ে পড়তে পারে। কিন্তু গত তিন সপ্তাহে চিনে মোট ২২৩ জন কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। এরপর সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, দেশেও শীতকালীন অলিম্পিকসের টিকিট বিক্রি করা হবে না।

বেজিং অলিম্পিকস অর্গানাইজিং কমিটি বিবৃতি দিয়ে বলেছে, “অলিম্পিসের সঙ্গে যাঁরা যুক্ত আছেন, তাঁদের স্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে আমরা আগের পরিকল্পনার পরিবর্তন করেছি।”

২০১৯ সালে চিনে প্রথম কোভিড সংক্রমণ শুরু হয়। বর্তমানে চিনে ‘জিরো কোভিড’ পলিসি কার্যকর করা হচ্ছে। গত কয়েক সপ্তাহে শিল্পনগরী তিয়ানজিন এবং গুয়াংডং-এ ব্যাপক হারে সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। এদিকে উইন্টার অলিম্পিকসের জন্য বিভিন্ন দেশের খেলোয়াড় ও কর্মকর্তারা চিনে আসতে শুরু করেছেন। তাঁদের অন্যদের থেকে আলাদা করে রাখা হচ্ছে। গত সপ্তাহে বেজিং-এ এক মহিলার দেহে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্ট ধরা পড়ে। তারপর দেশের অন্য প্রান্ত থেকে বেজিং-এ আসার ক্ষেত্রেও কড়াকড়ি করা হচ্ছে। এখন বেজিং-এ ঢুকতে চাইলে কোনও ব্যক্তিকে অবশ্যই কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট আনতে হচ্ছে। শুধু তাই নয়, শহরে ঢোকার পরে তাঁর আর এক দফা কোভিড টেস্ট হচ্ছে।

বেজিং-এ যে মহিলার দেহে ওমিক্রন ধরা পড়েছে, তিনি সম্প্রতি বিদেশে যাননি। কিন্তু বিদেশ থেকে তাঁর কাছে একটি চিঠি এসেছিল। নগর কর্তৃপক্ষের ধারণা, ওই চিঠির মাধ্যমেই তিনি ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্টে সংক্রমিত হয়েছেন। চিনের নাগরিকদের এখন বিদেশি পণ্য কিনতে বারণ করা হচ্ছে। কারণ সেই পণ্যে করোনাভাইরাস থাকতে পারে।

You might also like