Latest News

জলপাইগুড়িতে জ্বরে কাবু শিশুরা, হাসপাতালে উপচে পড়ছে ভিড়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জলপাইগুড়িতে (Jalpaiguri) জ্বরের (Fever) প্রকোপে কাবু শিশুরা (Children)। একরত্তিদের দলে দলে হাসপাতালে ভর্তি করতে হচ্ছে। জেলা সদর হাসপাতালে শিশুদের ভিড় জমে গিয়েছে। ডেঙ্গি না ম্যালেরিয়া না কি করোনা, জ্বরের আসল কারণ নিয়ে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে বাবা-মায়েদের মধ্যে।

অর্জুনের বাড়ির সামনে বোমাবাজি: এনআইএ তদন্তের নির্দেশ দিল মোদী সরকার

জলপাইগুড়ি জেলা সদর হাসপাতালের শিশু বিভাগে এই মুহূর্তে চিকিৎসাধীন ১৩০ জন শিশু। গতকাল সংখ্যাটা ছিলো ১২১।পাশাপাশি হাসপাতালের আউটডোর বিভাগেও উপচে পড়ছে অসুস্থ শিশুর ভিড়। কেন আচমকা শিশুদের এই জ্বর হচ্ছে, তা নিয়ে সংশয়ে রয়েছেন চিকিৎসকরা। তবে হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সুপার জানিয়েছেন, বাচ্চাদের তেমন কারও ডেঙ্গি ম্যালেরিয়া বা করোনা ধরা পড়েনি। ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস থেকে এমনটা হতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

জলপাইগুড়ির জেলাশাসক জানিয়েছেন, চার দিন আগে একটি শিশুর করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলে শুনেছেন তিনি। তাঁকে আলাদা রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা হয়েছে। সূত্রের খবর, এক শিশুর দেহে মিলেছে ডেঙ্গির জীবানুও। তবে সেকথা স্বাস্থ্য দফতর স্বীকার করেনি। এদিন জেলাশাসক জলপাইগুড়ি জেলা সদর হাসপাতালে গিয়ে সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেছেন। কথা বলেছেন অসুস্থ শিশুদের মায়েদের সঙ্গে। ওই হাসপাতালে আরও বেডের সংখ্যা বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। শিশু ওয়ার্ডে আরও ৪০টি বেড বাড়ানো হচ্ছে।

জলপাইগুড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পিকু বা পেডিয়াট্রিক কেয়ার ইউনিট পেডিয়াট্রিক কেয়ার ইউনিটের ব্যবস্থা নেই। জ্বর নিয়ে সেখানে ভর্তি হওয়া তিন শিশুর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁদের স্থানান্তরিত করতে হয়েছে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। শিশুদের আরও ভাল পরিষেবা দেওয়ার জন্য অবিলম্বে যাতে পিকু চালু করা যায় সে দিকটাও দেখা হচ্ছে।

গত পাঁচ দিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি এক শিশুর মা জানিয়েছেন সকাল সন্ধে করে নিয়মিত জ্বর আসছিল তাঁর বাচ্চার। তবে এখন জ্বর কমেছে। রয়েছে সর্দি কশি। আরও এক শিশুর মা জানিয়েছেন ঠান্ডা লেগেই জ্বর এসেছিল তাঁর বাচ্চার। এখন অনেকটা সুস্থ আছে।

শিশুদের মধ্যে হঠাৎ জ্বরের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় এদিন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে থেকে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে আসে ৫ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল। উত্তরবঙ্গের জনস্বাস্থ্য বিষয়ক অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি ডাক্তার সুশান্ত রায় সহ জলপাইগুড়ি জেলার স্বাস্থ্য কর্তাদের সঙ্গে তাঁদের বৈঠক হয়। একে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে বাচ্চাদের সংক্রমণের আশঙ্কা, অন্যদিকে এই জ্বরের প্রকোপ যথেষ্ট চিন্তা বাড়িয়েছে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like