Latest News

বাজেটে কোভিড ভ্যাকসিনের জন্য বরাদ্দ কমানো হয়েছে ৮৫ শতাংশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো : কেন্দ্রীয় সরকার (Central Government) কি বিনা পয়সার কোভিডের ভ্যাকসিন (Covid Vaccine) প্রাপকের সংখ্যা কমিয়ে আনবে? মঙ্গলবার অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন (Nirmala Sitaraman) কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করার পরে পর্যবেক্ষকদের এমনই ধারণা হয়েছে। কারণ ২০২২-২৩ সালে কোভিড টিকাকরণের খাতে বরাদ্দ কমানো হয়েছে ৮৫ শতাংশ। চলতি আর্থিক বছরে কোভিড টিকাকরণে বরাদ্দ করা হয়েছে ৩৯ হাজার কোটি টাকা। কিন্তু আগামী আর্থিক বছরে ওই খাতে খরচ হবে ৫ হাজার কোটি টাকা।

মুম্বইয়ের টাটা ইনস্টিটিউট অব সোশ্যাল সায়েন্সেস-এর অধ্যাপক আর রমাকুমার বলেন, “বাজেট দেখে বোঝা যাচ্ছে, সরকার সকলকে বিনা পয়সায় ভ্যাকসিন দিতে চায় না।” রমাকুমারের মতে, সরকার যদি আগামী আর্থিক বছরেও বিনা পয়সায় টিকাকরণ কর্মসূচি চালাতে চায়, তাহলে খরচ হবে ২৫ থেকে ৩০ হাজার কোটি টাকা। বাজেটে বরাদ্দ না করলেও পরে অন্যভাবে সরকার সেই অর্থ সংগ্রহ করতে পারে। কিন্তু অন্য কোনও প্রকল্প থেকে অত টাকা নিতে গেলে বাজেটের সব হিসাব ভণ্ডুল হয়ে যাবে।

গতবছর জানুয়ারি মাসে দেশে টিকাকরণ শুরু হয়। ভারতে মোট ৯৪ কোটি ৫০ লক্ষ প্রাপ্তবয়স্কের মধ্যে ৯৮ শতাংশ ভ্যাকসিনের অন্তত একটি ডোজ পেয়েছেন। দু’টি ডোজ পেয়েছেন ৭৬ শতাংশ। ভ্যাকসিনের মোট ১৬৭ কোটি ডোজ ব্যবহার করা হয়েছে। তার মাত্র পাঁচ শতাংশ দেওয়া হয়েছে বেসরকারি হাসপাতাল থেকে।

গত মাসে ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। সেই সঙ্গে ৬০ বছরের বেশি বয়সী যে নাগরিকদের কো-মর্বিডিটি আছে, তাঁদের বুস্টার ডোজ দেওয়া হচ্ছে। বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করেন, ভারতের সব নাগরিককেই বুস্টার ডোজ দেওয়া উচিত। কারণ টিকার দু’টি ডোজ ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্ট ঠেকানোর পক্ষে যথেষ্ট নয়।

You might also like